অল্প বয়সে চুলপড়া

লাইফস্টাইল ডেস্ক : চুল ত্বকের অংশ। চুলের পুষ্টি আসে হেয়ার বালবের শিরা-উপরিশা থেকে। তাই চুলের পুষ্টি সঞ্চালন করতে হলে হেয়ার ফলিকলের নিচে, ত্বকের গভীরে হেয়ার বালবে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে হবে। মাথার চুল ঝরে দিন দিন টাক পড়ে যাচ্ছে বা চুল পাতলা হয়ে যাচ্ছে, এসব লোকের সংখ্যা অনেক। প্রতিদিন ১০০টির বেশি চুল পড়লে মাথা ফাঁকা হতে শুরু করে।

কেন চুল পড়ে

-মানসিক অশান্তি, দুশ্চিন্তা, বিষাদগ্রস্ততা, অপুষ্টি ও অবৈজ্ঞানিক উপায়ে ডায়েটিং চুল ঝরে যাওয়ার অন্যতম কারণ।

-জ্বর, লিভার ও কিডনির অসুখ, কেমোথেরাপি নেয়ার পর, রক্তস্বল্পতা, কিছু ওষুধ যেমন ইনডোমেথাসিন, জেন্টামাইসিনের কারণেও চুল অতিমাত্রায় পড়ে যেতে পারে।

-খুশকি, উকুন, শুষ্ক ও চটচটে মাথার স্ক্যাল্পও চুলের জন্য শত্র“।

চিকিৎসা

চিকিৎসক রোগী ভেদে মুখে খাওয়ার ওষুধ, চুল ঝরা বন্ধের লোশন, শ্যাম্পু, প্রেসক্রাইব করেন। আধুনিক চিকিৎসা হচ্ছে মেসোথেরাপি ও পিআরপি। এটি করতে কয়েক সেশন লাগে। অ্যান্ড্রোজেনিক অ্যালোপেসিয়া বা বংশগত টাকে এটি কার্যকরী চিকিৎসা।

-চুলের চিকিৎসা দীর্ঘমেয়াদে নিতে হয়। তাই ধৈর্য প্রয়োজন এবং লাইফস্টাইল ও খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন কাম্য।

ত্বক ও যৌনব্যাধি বিশেষজ্ঞ

আল-রাজি হাসপাতাল, ফার্মগেট, ঢাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published.