অসুস্থ মেয়েকে দেখতে যুক্তরাজ্যে যেতে পারবেন বাংলাদেশি মা

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করা বাংলাদেশি এক মা যুক্তরাজ্যে বসবাসরত অসুস্থ মেয়েকে দেখতে যাওয়ার জন্য ভিসা পেয়েছেন। প্রয়োজনীয় চাহিদা পুরণ করতে না পারায় তার ভিসা আবেদন বাতিল করা হয়েছিল। সংবাদমাধ্যমে এনিয়ে খবর প্রকাশের পর ‘ব্যতিক্রমভাবে সিদ্ধান্ত’ বদলেছে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

৬১ বছর বয়সী ফাতেহা বেগম মাঝে মাঝে বাংলাদেশ এবং মাঝে মাঝে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করনে। লন্ডনে বসবাসরত মেয়ে অসুস্থ তুনাজ্জিনা নিজুকে দেখতে যেতে ভিসার আবেদন করেন তিনি। নিজু ওভারিয়ান ক্যান্সারে ভুগছেন। তবে বেগমের আবেদন সঠিক মনে না হওয়ার ভিত্তিতে ভিসা প্রত্যাখান করে যুক্তরাজ্য। তার ঘটনাকে দৃষ্টিগোচর করে সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশের পর চলতি সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি পান ফাতেহা বেগম। ওই চিঠিতে তাকে নিশ্চিত করা হয়, ‘ব্যতিক্রমভাবে সিদ্ধান্ত বদলেছেন’ তারা।

পূর্ব লন্ডনে স্বামী ও দুই সন্তানের সঙ্গে বসবাস করেন নিজু। দুই দফা ব্যর্থ কেমোথেরাপির পর বর্তমানে হাসপাতালে আছেন তিনি। এখন তার রেডিওথেরাপি শুরু করার কথা কিন্তু কিডনি কাজ না করতে থাকায় দেরি হচ্ছে তা। তিনি বলেন, আমি খুবই খুশি। আমার মা আগামী সপ্তাহে আসবেন। আজ সকালেও তার সঙ্গে কথা বলেছি আর তিনি এতটাই খুশি হয়েছেন যে আনন্দেস কেঁদে ফেলেছেন। যখন ভেবেছিলাম তাকে আর দেখতে পাবো না তখন খুবই কষ্ট পেয়েছিলাম।

ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, প্রয়োজনীয় চাহিদা পূরণ করতে না পারায় বেগমের ভিসা আবেদন বাতিল করা হয়েছিল কিন্তু সহানুভূতি বিবেচনায় নিয়ে এই সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করা হয়।