আটলান্টিক সিটিতে দুর্গোৎসব এর ব্যাপক প্রস্তুতি

প্রকাশিত:বুধবার, ১৮ সেপ্টে ২০১৯ ০৩:০৯

আটলান্টিক সিটিতে দুর্গোৎসব এর ব্যাপক প্রস্তুতি

আটলান্টিক সিটি থেকে সুব্রত চৌধুরী :                         বাংলার আকাশে এখন ছেঁড়া ছেঁড়া পেঁজা পেঁজা সাদা তুলোট মেঘের ছোটাছুটি,কাশবনে কাশ ফুলের দোল,শিউলি ফুলের সুগন্ধে মাতোয়ারা ধরিএী।যদিও সুদূর আমেরিকায় এসবের কোন ছোঁয়াই নেই,তথাপি অন্তরে লালন-পালন করা দেশীয় কৃষ্টি ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য মনন পোড়া মনকে জানান দেয়-ঋতুটা শরৎ,সময়টা শারদোৎসবের।পুরাণে দেবী দুর্গার আবির্ভাব তত্ত্বে বলা হয়েছে, সমাজের সব অশুভ শক্তির বিনাশে দেবী দুর্গার মর্ত্যে আবির্ভাব।এেতাযুগে অসুরকূলের দাপটে সমগ্র মানব জাতি যখন উৎকণ্ঠিত তখন মানব কল্যাণে এই ধরাধামে আবির্ভূত হন ভগবান শ্রী রামচন্দ্র। তিনি পিতৃ আদেশে বনবাসে থাকাকালীন লঙ্কেশর রাবন তাঁর স্ত্রী সীতাকে অপহরন করে লংকায় লুকিয়ে রাখেন।লংকাপুরী থেকে প্রিয়তমা স্ত্রী সীতাকে উদ্ধারের জন্য শক্তি সঞ্চয়ের উদ্দেশ্যে শ্রী রামচন্দ্র শরৎকালে দেবী দুর্গাকে মর্ত্যে আহবান করেন। বসন্তকালের পরিবর্তে শরৎকালে দেবী দুর্গাকে আহবান করায় এ পূজাকে ‘অকালবোধন’ বলা হয়।এর পরিপ্রেক্ষিতেই শরৎকালে দুর্গাপূজার প্রচলন হয়।

 

সনাতনী হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষের বিশ্বাস,অসুর শক্তি বিনাশকারী দেবী দুর্গার আরাধনার মধ্য দিয়ে সমাজ থেকে সব পাপ দূর হয়ে যাবে, সমাজে ফিরে আসবে শান্তি। এবছর দেবী দুর্গা মর্ত্যে আসছেন ঘোড়ায় চড়ে, দেবী দুর্গা বিদায়ও নেবেন ঘোড়ায় চড়ে।               শারদোৎসবের বার্তা পেয়ে প্রবাসী বাংগালি হিন্দুরা মেতে উঠেছে দুর্গোৎসবের হরেক আয়োজনে।

.

নিউজারসি রাজ্যের আটলান্টিক সিটিতে  শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনের ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।  আটলান্টিক সিটির  ফ্লোরিডা এভিনিউতে অবস্থিত সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মন্দিরে আগামী তেসরা অক্টোবর,বৃহস্পতিবার থেকে সাত অক্টোবর, সোমবার পর্যন্ত  পূজার যাবতীয় শাস্ত্রীয় কর্মযজ্ঞ সম্পাদন করা হবে।তেসরা অক্টোবর,বৃহস্পতিবার ষষ্ঠী পুজার মধ্য দিয়ে দুর্গোৎসব  শুরু হবে এবং সাত অক্টোবর,সোমবার বিজয়া দশমীর মধ্য দিয়ে পাঁচদিনব্যাপী  দুর্গাপুজা শেষ হবে।দুর্গোৎসবের বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে পূজার্চনা, আরতি,সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মহাপ্রসাদ বিতরন।দুর্গাপূজার সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আয়োজক সংগঠনের সিনিয়র শিল্পীদের সাথে প্রবাসে বেড়ে ওঠা প্রজন্মও অংশগ্রহন করবে।তাই মহড়াতে অংশগ্রহনকারীদের কল-কাকলিতে বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত মহড়া প্রাঙ্গণ মুখরিত থাকে।আটলান্টিক সিটির  দুর্গোৎসবে   নিউজার্সি ছাড়াও নিউইয়র্ক, পেনসিলভেনিয়া সহ অন্যান্য রাজ্য থেকেও প্রবাসী হিন্দুদের ব্যাপক সমাগম ঘটবে।                                                                                                                                                                                                                                                                 দুর্গাপূজার এই ক’টা দিন প্রবাসী হিন্দুরা মেতে থাকবেন অনাবিল আনন্দে। “আনন্দলোকের মঙ্গলালোকে অন্যরকম অনুভূতি আর ভিন্নতর ভালোবাসায় উদ্বেলিত হোক সকল প্রবাসী হিন্দুর মন-প্রাণ”- এই হোক সবার অন্তরের কামনা।

এই সংবাদটি 1,225 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •