এখন খুলনায় মনোযোগ বিএনপির

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন আদালতে আটকে যাওয়ায়  এখন খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে সর্বাত্মক চেষ্টায় নামবে বিএনপি।

 

দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, “গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। খুলনায় নির্বাচনের প্রচারণা চলছে। সেখানেও ধানের শীষের পক্ষে টেউ উঠেছে। গাজীপুর যেহেতু বন্ধ, আমাদের আরও নেতারা খুলনা যাবেন, আরও ঢেউ উঠবে।”

 

সীমানা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে এক ইউপি চেয়ারম্যানের রিট আবেদনে হাই কোর্ট গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করার পরদিন সোমবার ঢাকায় এক আলোচনা অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

 

বিএনপি অভিযোগ করেছে, এই নির্বাচন স্থগিতে সরকারের হাত রয়েছে।

 

নজরুল বলেন, “গণজোয়ারে তারা (সরকার) আতঙ্কে রয়েছে। কাজেই কখন আবার খুলনাও বন্ধ করে দেওয়া হয়- আল্লাহ জানে। কারণ এই সরকার পরাজিত হতে চায় না।।”

 

আগামী ১৫ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় খুলনা সিটি নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু।

 

জাতীয় প্রেস ক্লাবে ২০ দলীয় জোটের শরিক ইসলামিক পার্টির প্রয়াত সভাপতি আব্দুল মবিনের স্মরণে আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন নজরুল। ২০১৫ সালের ৬ মে মোবিন মারা যান।

 

‘শক্ত আন্দোলন’

 

খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে শক্ত আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন নজরুল।

 

তিনি বলেন, “উনার (খালেদা জিয়া) ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশেই আমরা শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলন করছি। এর অর্থ এই নয় যে, সরকার যা খুশি তাই করবে আর আমরা সব সহ্য করব।

 

“আমাদের তৃণমূল থেকে চাপ আসছে। আজকে এই মিটিংয়ে নেতাদের বক্তৃতায় আমরা দেখলাম, অডিয়েন্স খুব খুশি যে, রাজপথে নামেন, শক্ত আন্দোলন করেন। এটা একটা গণদাবির মতো হয়ে যাচ্ছে।”

 

মঙ্গলবার জিয়া এতিমখানা ট্রাস্টের মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন পেলেও তার মুক্তি আটকাতে সরকার নানা কৌশল নিতে পারে বলে সন্দেহ নজরুলের।

 

“আগামীকাল ৮ তারিখে তার জামিনের শুনানি আছে। কালকে যদি সুপ্রিম কোর্ট তার জামিন কনফার্মও করে, তাহলে অন্য মামলায় শোন অ্যারেস্টের কারণে তিনি মুক্ত হতে পারবেন না। সরকার নানা কৌশলে তাকে জেলে আটকিয়ে রাখার চেষ্টা করতে পারে। একটা শোন অ্যারেস্টে আমরা জামিন করালাম, আরেকটা শোন অ্যারেস্ট দেখায়া দিল। আরেকটাতে জামিন করালাম, আরেকটাতে দেখায় দিল।”

 

ইসলামিক পার্টির সভাপতি আবু তাহের চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় ন্যাপ-ভাসানীর সভাপতি আজহারুল ইসলাম, ডিএল‘র সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন মনি, এনডিপি‘র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মনজুর হোসেন ঈসা, ইসলামী ঐক্যজোটের যুগ্ম মহাসচিব শওকত আমীন, ইসলামিক পার্টির মহাসচিব আবুল কাশেম, জ্যেষ্ঠ নেতা এজাজ হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন চৌধুরী, এম এ রশিদ সম্রাট, আব্দুল মোবিন স্মৃতি সংসদের মাহমুদুল হাসান, আল-আমীন বক্তব্য রাখেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.