এমসি’র ছাত্রাবাসের ঘটনায় দলীয় লোকদের ছাড় দেননি প্রধানমন্ত্রী : ব্যারিস্টার সুমন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ০৮ অক্টো ২০২০ ০২:১০

এমসি’র ছাত্রাবাসের ঘটনায় দলীয় লোকদের ছাড় দেননি প্রধানমন্ত্রী : ব্যারিস্টার সুমন

ফেনীর নুসরাতের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় যে ভয়াবহ নারকীয় ঘটনা ঘটে গেল, দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ না করা হলে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে দেশে। মনে হয় যেন আইয়ামে জাহেলিয়াতকেও হার মানিয়েছে ওই নারকীয় ঘটনা। ঘৃণা জানানোর ভাষা নেই।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি করার ঘটনা নিয়ে রোববার (৪ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১২টার দিকে ফেসবুক লাইভে এসে এমন মন্তব্য করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টে যাওয়ার আগেই যেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বিশেষ করে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজি) ও র‌্যাবের পক্ষ থেকে যেই পারেন দ্রুত সময়ের মধ্যে বেগমগঞ্জের এ ঘটনার বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। তারা (অভিযুক্তরা) যদি ভয়ানক বাহিনীর সদস্য হয়ে থাকে, তাহলে প্রয়োজনে অস্ত্র উদ্ধারের অভিযানে যান।’

তিনি বলেন, ‘সিলেটের এমসি কলেজের ঘটনায় নিজের দলীয় লোকদের ছাড় দেননি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমি আশা করব, বেগমগঞ্জের দেলোয়ার নামের এক দস্যূ নারীর ওপর নির্যাতন করার পর আবার সেটি ফেসবুকে ছেড়েছে। কী ভয়াবহ সাহস হলে পারে এমন আইয়ামে জাহেলিয়াতের মতো কাণ্ড ঘটাতে পারে!’

সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী আরও বলেন, নারী নির্যাতন বন্ধ করুন, তা নাহলে বহু জাতি ধ্বংস হয়েছে এ কারণে। এমনিতেই তো করোনা আর দারিদ্র্যের মাঝে কোনো রকমে বেচেঁ আছে মানুষ। এদের বিচার না হলে বেঁচে থাকা আরও কষ্টের হবে।

লাইভের এক পর্যায়ে ব্যারিস্টার সুমনকে আক্ষেপ করে বলতে শোনা যায়, ‘একজন মানুষকেও কি সুস্থ থাকতে দেবেন না নাকি? ঘুমাতে যাওয়ার আগে আর ঘুম থেকে সকালে জেগে এমন ঘটনা শুনলে মানুষ আর সুস্থ থাকতে পারে না।’

গত ২ সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের খালপাড় এলাকার নূর ইসলাম মিয়ার বাড়িতে ওই গৃহবধূর বসতঘরে ঢুকে তার স্বামীকে পাশের কক্ষে বেঁধে রাখে স্থানীয় বাদল ও তার সহযোগীরা। এরপর গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করে তারা। এ সময় গৃহবধূ বাধা দিলে তারা বিবস্ত্র করে বেধড়ক মারধর করে মোবাইলে ভিডিও চিত্র ধারণ করেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুই দফায় অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ