ওয়াশিংটনে বই মেলায় ফখরুদ্দীন

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানীতে বাঙালিদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক বইমেলায় যোগ দিলেন ফখরুদ্দীন আহমদ।

 

ছুটির দিনে ওয়াশিংটন ডিসির উপকণ্ঠে ভার্জিনিয়ার এনানডেল শহরে নোভা কম্যুনিটি কলেজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত এই মেলায় একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আলোচনা করেন তিনি।

 

বাংলাদেশে জরুরি অবস্থার মধ্যে গঠিত বহুল আলোচিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা ফখরুদ্দীনকে।

 

এর আগে ওয়াশিংটন ডিসিতে বিভিন্ন পারিবারিক অনুষ্ঠান এবং ঈদ জামাতে দেখা গেলেও এই প্রথম কোনো প্রকাশ্য অনুষ্ঠানে দেখা গেল। অনুষ্ঠানে তার স্ত্রীও ছিলেন।

 

ড. আশরাফ আহমেদের ‘পাণ্ডুলিপির একাত্তর’র মোড়ক উন্মোচনের পর আলোচনায় ফখরুদ্দীন বলেন, “আশরাফ আহমেদের সাথে আমার প্রথম পরিচয় আশির দশকে যখন তিনি বিজ্ঞান নিয়ে গবেষণা করতেন, যা এখনও করে থাকেন। অবশ্য এখন তিনি লেখক হিসেবেই বেশি পরিচিতি পাচ্ছেন।”

 

বইটি পড়ার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে তিনি বলেন, “লেখকের ভাষায় একাত্তর আমাদের জীবনের এক বিশাল প্রান্তর। এখানে অনেকগুলো ঘটনা, অনেকগুলো দ্বন্দ্ব উঠে এসেছে।

 

“এখানে উঠে এসেছে তার সময়কার, তখনকার ছাত্রলীগ ও ছাত্র ইউনিয়নের তাত্ত্বিক দ্বন্দ্বের কথা, উঠে এসেছে তার মুক্তিযুদ্ধে যাওয়ার ও না যাওয়ার দ্বন্দ্বের কথা, উঠে এসেছে কে মুক্তিযোদ্ধা আর কে মুক্তিযোদ্ধা নয় সেই দ্বন্দ্বের কথা। এ ধরনের অনেক ক্রাইসিসের কথা সাবলীল ভাষায় তিনি লিপিবদ্ধ করেছেন।”

 

দুই বছর তত্ত্বাবধায়ক সরকারে দায়িত্ব পালনের পর এখন যুক্তরাষ্ট্রেই থাকছেন ফখরুদ্দীন। তবে দেশের রাজনীতিতে প্রায়ই আলোচনায় আসেন তিনি, পড়েন সমালোচনার মুখেও।

 

বক্তব্যে এই বইমেলার আয়োজকদেরও ধন্যবাদ জানান ফখরুদ্দীন আহমদ।

 

‘বিশ্বজুড়ে বাংলা বই’ স্লোগানে অনুষ্ঠিত এই মেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। বাংলাদেশ থেকে এসেছিলেন ‘সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি’র প্রধান ফরিদ আহমেদ, কবি সৈয়দ আল ফারুক, ড. নাসরিন জেবিন ও পারমিতা হীম, শিল্পী নাহিদ নাজিয়া।

 

 

সকালে মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়েছিল, আলোচনা আর আড্ডায় দিন পার হওয়ার পর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাতে শেষ হয় আয়োজন।

মেলায় ‘আগুনমুখার মেয়ে’ নামে আত্মজৈবনিক গ্রন্থটির জন্য পুরষ্কৃত হন নূরজাহান বোস। বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয় ঔপন্যাসিক দিলারা হাশেমকে।

 

প্রবাসী স্থপতি ও কবি আনোয়ার ইকবাল কচির নেতৃত্বে সংস্কৃতিকর্মী জীবক বড়ুয়া ও দস্তগীর জাহাঙ্গীরের পরিচালনায় ‘আমরা বাঙালি ফাউন্ডেশন’ এই বইমেলার আয়োজন করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.