Thu. Nov 14th, 2019

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

‘কষ্ট কেউ দেখে না’

1 min read

কেউ সাত মাস বেতন পান না, কেউ পান না ৭৫ মাস ধরে। সরকারি বেতন কাঠামো থাকলেও দীর্ঘদিন বেতন না পেয়ে কাটাচ্ছেন মানবেতর জীবন। এরা দেশের বিভিন্ন পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারী। ফলে সরকারি কোষাগার থেকে নিয়মিত বেতন ভাতা ও পেনশন সুবিধা চেয়ে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে রাজপথে আন্দোলন করছেন তারা।

 

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত ১৮ দিন ধরে তারা এখানে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা তাদের আন্দোলন অব্যাহত রাখবেন বলে জানান।

 

কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুর পৌরসভায় কর্মরত শওকত হোসেন লিটন বলেন, ‘১৪ বছর ধরে পৌরসভায় কাজ করছি। গত ১৯ মাস ধরে আমাদের পৌরসভায় বেতন বন্ধ। এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবন অতিবাহিত করছি।’

 

তিনি বলেন, ‘এখানে অনেকে আছেন যারা ৬০ মাস, ৭০ মাস বা ৭৫ মাস পর্যন্ত বেতন পাননা। সরকারের কাছে প্রশ্ন, এতোদিন বেতন না পেয়ে একজন মানুষ কীভাবে তার সংসার চালাবে?

 

আন্দোলনরত কয়েকজন জানান, পৌরসভার আয় থেকে তাদের বেতন-ভাতা দেওয়া হয়। কিন্তু পৌরসভার কোষাগারে সব সময় বেতন দেওয়ার মতো অর্থ থাকে না। এতে সব সময় বেতন ঝুঁকিতে থাকতে হয়।’

 

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদি পৌরসভায় কর্মরত সালাউদ্দীন বলেন, ‘১৭ বছর ধরে সততার সঙ্গে চাকরি করছি। গত ৯ মাস ধরে বেতন বন্ধ। স্ত্রী সন্তানদের সঙ্গে খুব কষ্টে আছি।’

 

তিনি বলেন, ‘খুব কষ্টে আছি। আমাদের এই কষ্ট কেউ দেখে না। কারো কাছে বলতেও পারি না। প্রধানমন্ত্রী যদি আমাদের কষ্ট অনুভব করেন তাহলে সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।’

 

বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি আব্দুল আলিম মোল্যা বলেন, গত ১৮ দিন ধরে ৩২৮টি পৌরসভার ৩২ হাজার ৫০০ কর্মকর্তা কর্মচারি এখানে আন্দোলন করছে। এদের মধ্যে অনেকে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। কেউ বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।’

 

তিনি বলেন, ‘কখনো বৃষ্টি হয়, কখনো প্রখর রোদ। এতে এখানে থাকতে আমাদের খুব কষ্ট হয়। আমরা চাই জনগণকে সেবা দিতে। সরকার যেন আমাদের দাবি মেনে নেয়- এটাই কামনা।’

 

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Developed By by Positive it USA.

Developed By Positive itUSA