কুড়িগ্রামে ৬০ হাজার মানুষ পানিবন্দী

প্রকাশিত:রবিবার, ২৭ সেপ্টে ২০২০ ১১:০৯

কুড়িগ্রামে ৬০ হাজার মানুষ পানিবন্দী

 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামে ৫ম দফা বন্যায় আমন ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে নতুন করে আরো ২৫টি চর প্লাবিত হয়েছে। এতে করে ১২০টি চরের প্রায় ৬০ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পরেছে। গত চব্বিশ ঘন্টায় ২৭৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। যা এ বছরে সর্বোচ্চ। ধরলা নদীর পানি অপরিবর্তিত থাকলেও বিপদসীমার ৩৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এছাড়াও ব্রহ্মপূত্র, তিস্তা, দুধকুমরসহ ১৬টি নদনদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নি¤œাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। সেইসাথে দেখা দিয়েছে তীব্র নদী ভাঙন। জেলার ৯টি উপজেলার ৬৭টি উন্মুক্ত পয়েন্টে ভাঙন তীব্ররুপ ধারণ করেছে।

এদিকে বন্যায় ঘরবাড়ি, আবাদিজমি, লেট্রিন, নলকুপ পানিতে তলিয়ে গেছে। দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও সেনিটেশন সমস্যা। বন্যায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পরেছে গ্রামিণ যোগাযোগ ব্যবস্থা। লোকজন গবাদিপশু নিয়ে আবার বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক মো: শামসুজ্জামান মিয়া জানান, পঞ্চম দফা বন্যায় ১৬ হাজার ৭৭৯ হেক্টর ফসল নিমজ্জিত হয়েছে। এরমধ্যে রোপা আমন ১৫ হাজার ৬৯৭ হেক্টর, মাসকালাই ৬৫৪ হেক্টর, শাকসবজি ৩৫০ হেক্টর এবং চিনা বাদাম ৮০ হেক্টর।

কুড়িগ্রাম রাজারহাট কৃষি আবহাওয়া অফিসের সহকারি পরিচালক সুবল চন্দ্র সরকার জানান, গত চব্বিশ ঘন্টায় ২৭৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। যা চব্বিশ ঘন্টার রেকর্ডে এ বছরের সর্বোচ্চ। আগামি ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বৃষ্টিপাত প্রবাহমান থাকবে বলে তিনি জানান।

এই সংবাদটি 1,230 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •