কোটা সংস্কার আন্দোলনের সমর্থনে লন্ডনে সমাবেশ

বাংলাদেশে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনের সমর্থনে লন্ডনে সমাবেশ হয়েছে।

 

বুধবার পূর্ব লন্ডনের এলএসসিআই স্টুডেন্টস অডিটোরিয়ামে এই সভা হয় বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক হাসনাত হোসাইনের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক কে এম এ মালেক।

 

সমাবেশে বক্তারা কোটা প্রসংগে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে ‘অযৌক্তিক ও চাতুর্যপূর্ণ’ আখ্যায়িত করে্ন। বৈষম্যমূলক কোটা সংস্কারের দাবিতে সৃষ্ট ছাত্র আন্দোলনের সেন্টিমেন্টকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্যই তিনি কোটা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন তারা।

 

সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা ও ভাংচুরেরও নিন্দা জানানো হয়।

 

সমাবেশে কে এম এ মালেক বলেন, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় না হলে বাংলাদেশ হত না। দেশের ভবিষ্যৎ মেধাবীদের অধিকার রক্ষার যে আন্দোলন চলছে তা অব্যাহত রাখতে হবে।”

 

তিনি ভিসির বাসভবনে হামলা ও ভাংচুরের নিন্দা জানান।

 

সভাপতির বক্তব্যে হাসনাত হোসাইন বলেন, “কোটা সংস্কারের দাবি হলো মৌলিক মানবাধিকার সংরক্ষণের দাবি। চলমান কোটা প্রথা বাতিল না করে এটিকে মুক্তিযাদ্ধা, প্রতিবন্ধী ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য যৌক্তিক সংখ্যায় সংস্কার করতে হবে।”

 

নসরুল্লাহ খান জুনায়েদের সঞ্চালনায় সমাবেশে সাবেক ছাত্রনেতা আব্দুল মান্নান, বুয়েটের সাবেক ভিপি ব্যারিস্টার তারিক বিন আজিজ, ব্যারিস্টার আফজাল জামী, মেজর আবু বকর সিদ্দিক, সাবেক ছাত্রনেতা আছকির আলী, দেওয়ান মুকাদ্দিম চৌধুরী নিয়াজ, ব্যারিস্টার ওবায়দুল হক টিপু, আহযাবুল হক, আব্দুল করীম ওবায়েদ, আনিসুর রহমান, জুবায়ের বাবু, আতাউল্লাহ ফারুক, মিসবাহুল ইসলাম বাবু, জালাল আহমদ বক্তব্য দেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.