খালেদার মুক্তি চেয়ে নিউ ইয়র্কে জাসাসের বিক্ষোভ

 

 

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ‘জাতীয়াতাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা’ (জাসাস) এর যুক্তরাষ্ট্র শাখা।

 

স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে ডাইভার্সিটি প্লাজায় এ বিক্ষোভ সমাবেশে স্থানীয় বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

 

যুক্তরাষ্ট্র জাসাসের সভাপতি আবু তাহেরের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও জাসাসের সাধারণ সম্পাদক হেলাল খান।

 

তিনি বলেন, “নব্বইয়ের মতো দুর্বার আন্দোলনের মধ্য দিয়েই বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনা হবে এবং বাংলাদেশের মানুষের মৌলিক অধিকার পুনপ্রতিষ্ঠা করা হবে।”

 

তিনি আরও বলেন, “ফিরে যাচ্ছি ঢাকায়। কেন্দ্রীয় নেতারাও প্রস্তুত। শুরু হবে লাগাতার আন্দোলন এবং সেই আন্দোলনের জোয়ারেই ভেসে যাবে সব স্বৈরশক্তি, প্রতিষ্ঠিত হবে জনগণের সরকার।”

 

 

 

যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুল লতিফ সম্রাট বলেন, “আন্দোলনের বিকল্প নেই। সংলাপের শুধু সময়ক্ষেপণ হবে। প্রয়োজন হচ্ছে দুর্বার আন্দোলন।”

বিএনপির সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক গিয়াস আহমেদ বলেন, “সরকারের দমন-পীড়নের বস্তুনিষ্ঠ তথ্য আমরা মার্কিন বন্ধুদের অবহিত করছি। এ কর্মসূচি অব্যাহত রাখবো খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং কেয়ারটেকার সরকার গঠিত না হওয়া পর্যন্ত।”

 

যুবদলের সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক এম এ বাতিন বলেন, “এখন সময় হচ্ছে ধাক্কা দেয়ার। অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারিদের ধাক্কা দিতে হবে সর্বাত্মক আন্দোলনের মাধ্যমে।”

 

বিক্ষোভে অন্যান্য নেতাদের মধ্যে আয়োজক সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি বাবরউদ্দিন, যুক্তরাষ্ট্র জাসাস সাধারণ সম্পাদক কাওসার আহমেদ, ব্রুকলিন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির সোহরাওয়ার্দি, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম জনি ও বিএনপি নেতা সৈয়দা মাহমুদা শিরিন উপস্থিত ছিলেন। স্লোগান দেন জাহাঙ্গির সোহরাওয়ার্দি ও কাওসার আহমেদ।

 

আগামী ২৪ জুলাই জাতিসংঘের সামনে আরেকটি সমাবেশ করার ঘোষণা দেন মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি বাবরউদ্দিন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.