‘খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ-তে ভর্তির পরামর্শ’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ নয় বলে জানিয়েছে সরকার গঠিত মেডিকেল বোর্ড। তবে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়-বিএসএমএমইউ-তে ভর্তির পরামর্শ দেয়া হয়েছে। আজ রোববার বিএসএমএমইউ’র পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল-হারুন এক ব্রিফিং-এ একথা জানান। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া হাসপাতালে ভর্তি হতে চাইলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলই ভালো হবে বলে চিকিৎসকরা পরামর্শ দিয়েছেন।
পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড আজ সকালে তাদের প্রতিবেদন হস্তান্তর করার পর হাসপাতালের পরিচালক বলেন, উনারা  (মেডিকেল বোর্ড) যেটা পেয়েছেন, নতুন কোনো সিরিয়াস উপসর্গ যোগ হওয়া, এটা হয়নি। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার আগে থেকেই রিউম্যাটয়েডআর্থ্রাইটিস (গেঁটে বাত) রয়েছে। সে কারণে দুই হাতে ও পিঠে ব্যথা অনুভব করেন। চোখে সমস্যা রয়েছে।

সেজন্য তাকে ব্যবস্থাপত্র দিয়েছেন চিকিৎসকরা।
হৃদযন্ত্র, রক্তচাপ বা ডায়াবেটিসের কোনো সমস্যা পাওয়া যায়নি বলে জানান বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের পরিচালক। বলেন, মেডিকেল বোর্ড উনাকে ট্রিটমেন্ট দিয়ে এসছেন। এরপরেও যদি হাসপাতালে ভর্তি হওয়া দরকার বলে তিনি মনে করেন, তাহলে মেডিকেল বোর্ড তাকে এমন একটি হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেছেন যেখানে সব ডিসিপ্লিনের চিকিৎসা দেয়া হয়। সেক্ষেত্রে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে ভর্তি হওয়ার পরামর্শই দেওয়া হয়েছে বলে জানান আবদুল্লাহ আল হারুন।
হাসপাতালের পরিচালক আরো জানান, মেডিকেল বোর্ডের রিপোর্ট বেলা সাড়ে ১২ টার থেকে ১ মধ্যে কারাগারে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক আবদুল জলিল চৌধুরীর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড শনিবার কারাগারে গিয়ে খালেদা জিয়াকে দেখে আসেন। বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক হারিসুল হক, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক আবু জাফর চৌধুরী, চক্ষু বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তারেক রেজা আলী ও ফিজিকেল মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ।