খালে বাধঁ দিয়ে মাছ চাষের প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার, ২১ জুলা ২০২০ ০৩:০৭

খালে বাধঁ দিয়ে মাছ চাষের প্রতিবাদে মানববন্ধন

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) :
কচ্ছপখালী খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ কৃষকের সর্বনাশ। খাল বাঁচাও, কৃষক বাঁচাও। স্বার্থনেষী মহল নিপাত যাক, বাঁচুক কৃষক বাঁচুক খাল। এমন অগনিত স্লোগান সম্মলিত ফেষ্টুন, ব্যানার নিয়ে দেড় শতাধিক কৃষক মানববন্ধন করেছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় কুয়াকাটা পৌর শহরের কচ্ছপখালী খালের বাঁধে দাড়িয়ে কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটির ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে অংশ গ্রহন করেছেন কৃষকরা। মানববন্ধনে অংশ নেয়া কৃষকরা বলেন, প্রবাহমান কচ্ছপখালী খালে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ৩ টি বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করছে। এতে পানি নিস্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যায়। পাশাপাশি প্রায় দুই হাজার একর ফসলি জমির বীচতলা ও সবজি ক্ষেত তলিয়ে হয়ে গেছে। আমন মৌসুমের চাষাবাদ ব্যহত হচ্ছে। কৃত্রিম জলাবদ্ধতায় রুপ নিচ্ছে কচ্ছপখালী,মুসুল্লীয়াবাদ,আজিমপুর,দোভাষী পাড়া ও নবীনপুর গ্রাম। প্রবাহমান খালে ভুমিহীন বন্দোবস্ত বাতিলসহ খালের পানি নিস্কাশন ব্যবস্থা সচলের দাবী জানায় ভুক্তভোগী কৃষকরা। গত কয়েক বছর ধরে খালটি পুরুদ্ধারে একাধিকবার আবেদন জানালেও রহস্যজনক কারনে ভুমি প্রশাসন কৃষকদের দাবী আমলে নিচ্ছে না এমন অভিযোগ জানিয়েছেন মানববন্ধনে অংশ নেয়া কৃষকরা। নবীনপুর গ্রামের বাসিন্দা দুলাল ফকির জানান, প্রায় ২০ বছর ধরে খালে বাধ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছে একটি গোষ্টি। খালটির বন্ধবস্ত বাতিলসহ বাধ কেটে দিয়ে পানি নিস্কাশনের দাবি জানিয়ে আসলেও কোন সুফল পাচ্ছে না এলাকাবাসী। কচ্ছপখালী খাল পুনরুদ্ধার কমিটির সভাপতি মোঃ শাহজাহান মৃধা বলেন, অন্যের নামে ভুমিহীন বন্দোবস্ত থাকলেও সাবেক ইউপি সদস্য চাঁন মিয়া হাওলাদার ১৯৮০ সালে প্রবাহমান কচ্ছপখালী খালটিতে তিনটি বাধ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছে। ১৩ কিঃমিঃ ওই খালটির ৩ কিঃমিঃ দখল করে মাছ চাষ করায় জলাব্ধতায় দূর্ভোগে পরেছে কয়েকশত কৃষক পরিবার। এ দূর্ভোগ থেকে রেহায় পেতে জেলা প্রশাসনের কাছে দাবী জানান তারা।
এসব বিষয়ে সাবেক ইউপি সদস্য চাঁন মিয়া হাওলাদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার রেকর্ডিও সম্পত্তির মধ্যে খাল, আমি ওই খালে মাছ চাষের জন্য বাঁধ দিয়েছি। কলাপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জগৎবন্ধু মন্ডল বলেন, খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করছে এমন অভিযোগ রয়েছে। খোঁজ খবর নিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
কুয়াকাটা পৌর মেয়র আঃ বারেক মোল্লা জানান,খালে বাধ দিয়ে মাছ চাষ করা হচ্ছে মৌখিক ভাবে তাকে দুই তিনজন লোক জানিয়েছেন। লিখিত অভিযোগ পেলে খালটি উদ্ধারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই সংবাদটি 1,227 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •