চারঘাট রাজশাহীর নবাব নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারি রবিন

প্রকাশিত:রবিবার, ২৬ জুলা ২০২০ ১২:০৭

চারঘাট রাজশাহীর নবাব নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারি রবিন

 

চারঘাট (রাজশাহী) :
আদর করে নাম রাখা হয়েছে রাজশাহীর নবাব,বয়স প্রায় ৪ বছর এক মাস।প্রায় ৬/৭ ফুট উচ্চতার রাজমাহীর নবাবের গায়ের চামড়ায় কালো-সাদা।এমনিতে খুব শান্ত প্রকৃতির আবার মাঝে মধ্যেই রেগে গর্জে ওঠে রাজশাহীর নবাব। বৃহৎ আকৃতির এক ষাড়টির সন্ধান পাওয়া গেছে চারঘাট উপজেলার নাওদাড়া গ্রামের মনিরুল হকের ছেলে রবিন ইসলামের খামারে। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী আর চঞ্চল প্রকৃতির কালো সাদা রঙের সুঠাম দেহের দেশি জাতের হলিষ্টেন ফ্রিজিয়ান ষাড়টিকে তার মালিকের পরিবার আদর করে নামে ডাকতেন রাজশাহীর নবাব। যাহার বর্তমান ওজন ৩৫ মণ। প্রতিদিন দুই বেলায় শ্যাম্পু দিয়ে গোসল করানো হয়। লোকমুখে আদুরে নবাবের কথা জানতে পেরে এখন প্রতিদিনই খামারে এসে ভীড় করছেন উৎসুক জনতা। তবে উপজেলায় নবাবের নামের এই ষাড় গরুর কথা সবার মুখে মুখে।
তবে সারাদেশে করোনার কারনে আসন্ন্ ৃইদে এবছরে কোরবানির পশুর হাটে নবাবকে তুলতে পারবেন কি-না সেটি নিয়ে শঙ্কা কাটছে না তার। তাই বাড়ি থেকে বিক্রির জন্য প্রস্তুত ওই খামারির মালিক রবিন ইসলাম।
ওই খামারির মালিক রবিন ইসলাম জানান, রাজশাহীর নবাবকে দেখতে আমার বাড়িতে প্রতিদিনই মানুষ ভিড় জমাচ্ছে। তবে গরু মোটাতাজাকরনের খাবার খাওয়ানোর সামথ্য ছিল না। সম্পৃর্ণ দেশীয় খাবার খাইয়াছি এবং উপজেলা প্রানি সম্পদ অধিদপ্তরের পরার্মশ অনুযায়ী তা লালন-পালন করে আসছি প্রায় ৪ বছর ধরে। নিয়মিত পরিস্কার-পরিছন্নতা, গোসল করানো ইত্যাদি। তিনি আরো বলেন বাংলা দেশীয় জাতের গরুটির প্রায় মাংস ২০/২২ মণ হতে পারে বলে জানান। যোগাযোগ ঠিকানা মোবাইল নং-০১৭১৯-৫৮৭৪৮১/০১৭৭৯-৩৫৪৯৩৮ এই নাম্বারে কল করুন।

এবিষয়ে চারঘাট উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মিজানুর রহমান বলেন, নাওদাড়া গ্রামের গরুটি ফ্রিজিয়াম জাতের গরু। গরুটিকে সম্পৃর্ণ দেশীয় খাবার খাইয়া প্রাকৃতিক উপায়ে লালন-পালন করা হয়েছে। অনেক আগে থেকেই এ গরু জাতের লালন পালন করে আসছে। এই জাতের গরু অনেককে এখোন বেশী বেশী করে খামারিরা পালনে অগ্রহী হচ্ছে।

এই সংবাদটি 1,230 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •