Sat. Jan 25th, 2020

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

চোখ ধাঁধানো গোলে খাতা খুললেন হ্যাজার্ড

1 min read

প্রাক-মৌসুম প্রীতি ম্যাচে জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা। রিয়ালের হয়ে গোলের খাতা খুলেছেন এডেন হ্যাজার্ড। অস্ট্রিয়ান ক্লাব স্যালজবুর্গের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক গোল করেছেন বেলজিয়ান তারকা

 

খেলাধুলায় কাকতালের অভাব নেই। এডেন হ্যাজার্ডের কথাই ধরুন, প্রথম রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হয়েছিলেন ২০১৩ সালের ৭ আগস্ট। সেটি ছিল প্রীতি ম্যাচ। হ্যাজার্ড তখন চেলসিতে। সেখান থেকে গত জুনে যোগ দিলেন রিয়ালে। দলটির হয়ে প্রথম গোল পেলেন সেই ৭ আগস্টেই আরও এটিও ছিল প্রীতি ম্যাচ!

 

অস্ট্রিয়ান ক্লাব স্যালজবুর্গের ঘরের মাঠে কাল প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলের জয় পেয়েছে রিয়াল। ১৯ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন হ্যাজার্ড। রিয়ালের হয়ে এটি বেলজিয়াম তারকার প্রথম গোল আর সেটি ছিল চোখ ধাঁধানো। বাঁ প্রান্তে মাঝমাঠের ওপাশ থেকে হ্যাজার্ডকে পাস দিয়েছিলেন করিম বেনজেমা। শুরুর গতিতে স্যালজবুর্গের এক ডিফেন্ডারকে ছাড়িয়ে যান হ্যাজার্ড। এরপর বাঁ প্রান্ত দিয়ে ড্রিবলিং করে ভেতরে ঢুকে ডান পায়ের বাঁকানো শটে বলকে পাঠিয়েছেন জালে।

 

প্রাক-মৌসুম প্রীতি ম্যাচে বায়ার্ন মিউনিখ, আর্সেনাল, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ, টটেনহাম ও ফেনারবাচের বিপক্ষে ভালো খেললেও গোল পাননি হ্যাজার্ড। শেষ পর্যন্ত গোলের অপেক্ষা ঘোচাতে পেরে খুশি এ ফরোয়ার্ড, ‘মাঠে নামলে সবাই জিততে চায় আর ফরোয়ার্ড হিসেবে তো গোল করতে চাওয়াই স্বাভাবিক। গত পাঁচ ম্যাচে এ মুহূর্তের অপেক্ষায় ছিলাম আর তা ঘটল আজ (কাল)। ভালো লাগছে।’

 

ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার এডেরকে এদিন রিয়ালের জার্সিতে অভিষেকের সুযোগ করে দেন কোচ জিনেদিন জিদান। রক্ষণভাগে সার্জিও রামোস ও রাফায়েল ভারানের পাশে খেলেছেন এডের। ১৭ আগস্ট সেল্টা ভিগোর মুখোমুখি হওয়ার আগে এএস রোমার বিপক্ষে শেষ প্রীতি ম্যাচটি খেলবে রিয়াল।

 

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে নাপোলির বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে বার্সেলোনাকে জিতিয়েছেন ইভান রাকিতিচ। চোটের কারণে লিওনেল মেসি না থাকলেও লুই সুয়ারেজ, আঁতোয়ান গ্রিজমান, স্যামুয়েল উমতিতি ও সার্জিও বুসকেটসদের নিয়ে বেশ শক্তিশালি একাদশই গঠন করেছিলেন বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে। ম্যাচের প্রথম আধ ঘণ্টায় গোলের দুর্দান্ত দুটি সুযোগ হাতছাড়া করেছে ইতালিয়ান ক্লাবটি। ৩৮ মিনিটে নাপোলির রক্ষণভাগ ফাঁকা পেয়ে গোল করেন বুসকেটস। চার মিনিট পরই উমতিতির ‘আত্মঘাতী’ গোলে সমতায় ফিরতে বাধ্য হয় কাতালান ক্লাবটি।

 

বিরতির পর নাপোলি এগিয়ে যেতে পারেনি আরকাদিউস মিলিকের অবিশ্বাস্য ব্যর্থতায়। ফাঁক গোলপোস্ট পেয়েও ক্রসবারের ওপর দিয়ে মারেন এ পোলিশ স্ট্রাইকার। নির্ধারিত সময়ের ১১ মিনিট আগে দুর্দান্ত ভলিতে বার্সাকে এগিয়ে দেন রাকিতিচ আর তাতেই শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের জয় তুলে নেয় ভালভার্দের দল।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.