Fri. Dec 13th, 2019

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

জম্মু-কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কাশ্মীর সংক্রান্ত কোর গ্রুপ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন। এতে কাশ্মীরের বিষয়টি বিশ্বব্যাপী তুলে ধরতে পাকিস্তানের আরও প্রচেষ্টার আলোচনা হয়েছে। এ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরইশি, আইন ও বিচারমন্ত্রী ফারোগ নাসিম, কাশ্মীরের সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী তথ্য ও সম্প্রচার ড. ফিরদাউস আশিক আওয়ান এবং অ্যাটর্নি জেনারেল অব পাকিস্তান উপস্থিত ছিলেন। বিশ্বজুড়ে কাশ্মীরের পরিস্থিতি তুলে ধরতে পাকিস্তানের রাজনৈতিক, কূটনৈতিক, আইনি এবং মিডিয়া প্রচেষ্টাকে আরও যুক্ত করার পদক্ষেপে একমত হয়েছেন। এর আগে পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ড. মোহাম্মদ ফয়সাল এক বিবৃতিতে বলেন, খাদ্য ও ওষুধের ঘাটতি হওয়ায় এ অঞ্চলটি মানবিক সংকটের অপেক্ষায় রয়েছে, যা জনগণের বিশেষত প্রবীণ, মহিলা ও শিশুদের জীবনকে ঝুঁকিপূর্ণ করছে। ভারতীয় বাহিনী দীর্ঘদিন ধরেই উপত্যকায় নৃশংস উপায়ে বিদ্রোহ দমন করে আসছে। ইতিমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চল মোতায়েনকৃত সেনা হিসেবে অতিরিক্ত সেনা এ অঞ্চলে মোতায়েন করা হয়েছে। এতে কারফিউ আরোপ করা হয়েছে। ৫ আগস্ট ভারত সরকার কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার পর থেকেই যোগাযোগের অচলাবস্থা সৃষ্টি করা হয়েছে; শীর্ষস্থানীয় কাশ্মীরি নেতাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। জিয়ো টিভির প্রতিবেদনে বলা হয়ছে, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি), মানবাধিকার সংস্থা এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম কাশ্মীরিদের ওপর দেয়া কারফিউ ও কাশ্মীরি জনগণের ভোগান্তি নিরসনের আহ্বান জানিয়েছিল। অধিকৃত কাশ্মীরের অবস্থা বিশ্লেষণ করে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্যও আহ্বান করা হয়েছে। কাশ্মীর কোর গ্রুপও অধিকৃত কাশ্মীরে বসবাসকারী জনগণকে তাদের নিজস্ব অধিকার ফিরিয়ে দেয়া এবং উপত্যকায় আটকেপড়া লোকদের পাকিস্তানের সহায়তার কথা উত্থাপন করা হয়।

1 min read

নিউইয়র্ক : সাভার উপজেলা এসোসিয়েশন ইউএসএ ইন্ক এর বর্ণাঢ্য বার্ষিক বনভোজন গত ১৮ আগস্ট লং আইল্যান্ডের ভ্যালি স্ট্রীম স্টেট পার্কের ভ্যালি স্ট্রীম প্যাভিলিয়নে অনুষ্ঠিত হয়। নিউইয়র্কের বিভিন্ন বরো ছাড়াও নিউজার্সী, কানেকটিকাট, পেনসেলভ্যানিয়া অঙ্গ রাজ্য থেকে আগত প্রায় তিনশত প্রবাসী সাভারবাসী বনভোজনে অংশগ্রহণ করেন। বেলা ১২টায় বনভোজন স্পট কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এ সময় সাভারবাসীর এক মিলনমেলায় পরিণত হয়। বেলা ১২:১৫ মিনিটে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় বেলুন উড়িয়ে বনভোজনের উদ্বোধন করেন সংগঠনের সভাপতি মোঃ আমান উল্লাহ্।

 

 

পরিচালনা করেন সাধারণ মোহাম্মদ আবুল কাশেম সরকার। প্রবাসী সাভারবাসীর মধ্যে বনভোজনে স্ব-পরিবারে অংশগ্রহণ করেন ঢাকা জেলা এসোসিয়েশন অব ইউএসএ ইন্ক এর প্রধান উপদেষ্টা, সংগঠনের উপদেষ্টা, প্রবাসের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ তাজুল ইসলাম, সংগঠনের উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ হাবিবুর রহমান, উপদেষ্টা আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল হালিম, উপদেষ্টা ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশন অব নর্থ আমেরিকা (জুয়ানা)- এর সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মোঃ মনিরুল ইসলাম, সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি ও বনভোজন উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক মোঃ নূরুল ইসলাম আবু, সহ-সভাপতি মো: দেলোয়ার হোসেন, মোস্তাক রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোঃ আওলাদ হোসেন, কোষাধক্ষ্য মোঃ খায়রুল আলম, দপ্তর সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম বিপু, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক হাফেজ মোঃ মিজানুর উল্লাহ্, সদস্য মোঃ এনায়েত হোসেন, মোঃ হারিজুর রহমান, রাজন দেওয়ান, মোঃ রনক, তালিম হোসেন, কাজী মোঃ সুলায়মান, , আতাউর রহমান, আমীর আফতাফ, আমিনুর উল্লাহ, মো: খলিলুর রহমান, মো: সেলিম মন্ডল, মো: আওলাদ হোসেন, সুজিত বাবু, কালাচান সাহা, আলিম নুরুল্লাহ প্রমুখ। বনভোজনে সাভারবাসী ছাড়াও কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশের জনপ্রিয় চিত্র জগতের কিংবদন্তি খল নায়ক মিশা সওদাগর ও তার সহধর্মিনী, বাংলাদেশ সোসাইটির সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুর রহিম হাওলাদার, সোসাইটির সভাপতি পদপ্রার্থী আশরাফ হোসেন নয়ন, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী, সদস্য আবুল কাসেম চৌধুরীসহ আরো অনেকে।

 

 

অপরিসীম দায়িত্ব ও কর্মব্যস্ততার ফাঁকে যেন একটু প্রশান্তির ছোঁয়া, নতুন উদ্যোমে কাজ করার নব প্রেরণা। কার্যকরী কমিটির কর্মকর্তা ও উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দের সফল বনভোজনের প্রতিটি মুহূর্ত ছিল আনন্দমুখর। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যময় পার্কের ঝকঝকে সজীব গাছ আর ঘাসের নয়নাভিরাম সৌন্দর্যের সঙ্গে মিশে গিয়েছিল প্রবাসী বাঙালিদের উচ্ছ্বাস। চমৎকায় আবহাওয়া ও পরিবেশে অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের অনেকেই সপরিবারে যোগ দিয়ে বনভোজনকে প্রাণবন্ত করে তোলেন। বিশাল পার্কের গাছের ছায়ায় বাংলাদেশী স্টাইলে চাদর বিছিয়ে তারা আড্ডায় মেতে উঠেন। দিনব্যাপী বনভোজনের পাশাপাশি ছিল নানা ধরনের আয়োজন। তবে খাবারের কথা না বললে বনভোজন থেকে যায় অসম্পূর্ণ। সকালে নাশতা, আইক্রীম, তরমুজ, দুপুরে খাবার আর পান-সুপারি।

 

আয়োজকদের চেষ্টা ছিল সবার কাছে উপভোগ্য এবং স্বতঃস্ফূর্ত করে তোলা। বলা যায়, সে প্রচেষ্টা সম্পন্নটাই সফল। দুপুরের খাবারের পরই ছিল গানের তালে তালে মহিলাদের বালিশ খেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আর র‌্যাফেল ড্র। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন বিশিষ্ট খল নায়ক সাভারের অধিবাসী মিশা সওদাগরের সহধর্মিনীসহ স্থানীয় শিল্পীরা। রাফেল ড্র পুরস্কার দিয়ে সহযোগিতা করেন এর্টনী মঈন চৌধুরী, এর্টনী তাসনোভা আমান উল্লাহ তৃষা, ডিটিএনওয়াই বাই সুইটি, বে অফ বেঙ্গলসহ আরো অনেকে। শেষ বিকেলে বিভিন্ন ইভেন্ট ও র‌্যাফেল ড্র এর পুরস্কার বিতরণ করেন বনভোজনে আগত অতিথি ও কার্যকরী কমিটির কর্মকর্তাবৃন্দ। পরিশেষে সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও বনভোজন উপকমিটির আহবায়ক ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মধ্যে দিয়ে বনভোজন ও মিলনমেলার সমাপ্তি হয়।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.