দক্ষিণ কোরিয়ার অদ্ভুত মাড বা কাঁদা ছুঁড়াছুঁড়ির উৎসব

প্রকাশিত: ১:১৭ পূর্বাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০

দক্ষিণ কোরিয়ার অদ্ভুত মাড বা কাঁদা ছুঁড়াছুঁড়ির উৎসব

উৎসবে অংশগ্রহণ করতে কার না ভালো লাগে! তাছাড়া কোনো অঞ্চলের মানুষের সামাজিক জীবন ধারা সম্পর্কে জানা এবং তার পূর্ণ জ্ঞান লাভের জন্য যে বিষয়গুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তার মধ্যে উৎসব অন্যতম মাধ্যম। বিশ্বজুড়ে প্রতি বছর হাজারো বর্ণিল উৎসব উদযাপিত হয়, উদযাপিত হয় কিছু বিচিত্র আর অদ্ভুত উৎসবও ।

উৎসব আমাদের সকলেরই প্রিয়, উৎসব মানেই বাড়তি আনন্দ। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন রকম উৎসবের প্রচলন রয়েছে। ধর্মীয়, সাংস্কৃতিক কিংবা অন্য যেকোনো প্রকার উৎসব। আমরা উটের লড়াই উৎসব, ষাড় উৎসব, টমোটো উৎসবের কথা তো অনেকেই জানি। তবে কাঁদা ছোঁড়াছুঁড়ি উৎসব এর কথা হয়তো অনেকেরই জানা নেই।

এটি দক্ষিণ কোরিয়ার একটি জনপ্রিয় উৎসব। আসুন কাঁদা উৎসব সম্পর্কে জানার আগে কাঁদা সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে নেই। কাঁদা কি? কাদা হচ্ছে জলযুক্ত মাটি। কাদা উৎসব এর জন্য বোরিঅং দেছন সমুদ্রের আশেপাশের উপকূল থেকে উচ্চমানের সমুদ্রের কাদা সংগ্রহ করে প্রক্রিয়াজাত করে এবং কাদার গুঁড়া থেকে উত্তোলিত কাদা জল দিয়ে মিশ্রিত করা হয়, এতে এই কাদা ত্বকের সৌন্দর্যে ত্বকের বৃদ্ধিকে রোধ করে এবং ত্বকের বর্জ্য অপসারণের মতো দুর্দান্ত প্রভাব ফেলে।

দক্ষিণ কোরিয়ার অদ্ভুত মাড বা কাঁদা ছুঁড়াছুঁড়ির উৎসব

এছাড়া কাদামাটির কার্যকারিতা সাধারণত ত্বকের বৃদ্ধিকে রোধ করতে প্রাকৃতিক খনিজ হিসাবে বিভিন্ন সক্রিয় উপাদানগুলো প্রচুর পরিমাণে ধারণ করে এবং কাদা খনিজ সমৃদ্ধ যা ত্বকের প্রাণশক্তি এবং স্থিতিস্থাপকতা দেয়। জানা গেছে, কাদামাটি ত্বকের নান্দনিকতা এবং চর্মরোগ নিরাময় করতে ব্যবহৃত হয়েছে, যেমন ক্লিওপেট্রার কাদা মেকআপ এবং চাইনিজ মাটির প্রসাধনী। কাদামাটিতে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে এবং এটি ট্রমা চিকিত্সায় দুর্দান্ত প্রভাব ফেলে।

দক্ষিণ কোরিয়ার অদ্ভুত মাড বা কাঁদা ছুঁড়াছুঁড়ির উৎসব

সর্বোপরি এটি মানুষের জীবনে বিস্তৃত প্রভাব ফেলে। মূলত দঃ কোরিয়ায় কাদার কসমেটিক গুণাবলী প্রসঙ্গে সচেতনতা বাড়াতেই শুরু হয়েছিল মাড ফেস্টিভ্যাল। ধীরে ধীরে তা রূপ নেয় বার্ষিক উৎসবে। কোরিয়ার পশ্চিম উপকূলে সিওল থেকে কয়েক ঘণ্টা দক্ষিণে ছুংছন নাম-দো প্রদেশের বোরিঅং শহরে দেছন বিচে এই উত্সবটি অনুষ্ঠিত হয়।

দেছন বিচ কোরিয়ার পশ্চিম উপকূলে বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত এবং এই বিচের কাদা পুষ্টি সমৃদ্ধ যা ত্বকের জন্য, স্বাস্থ্য উপকারিতার জন্য সুপরিচিত। প্রতিবছর হাজার হাজার আন্তর্জাতিক দর্শকদের স্বাগত জানানো এই উৎসবটি এ বছর জুলাই মাসে ২৩তম বারের মতো হতে যাচ্ছে। উৎসবটিতে বিভিন্ন দেশের দর্শনার্থীদের পাশাপাশি দেখা মিলে বাংলাদেশের প্রবাসীদের। উৎসবের আকর্ষণ বাড়াতে যোগ করা হয় নানা ধরনের খেলা ও প্রতিযোগিতা। মাড স্লাইডিং, মাড রেসলিং, মাড রান, মাড কিং কনটেস্ট, মাড ফায়ারওয়ার্ক কনটেস্ট, প্রভৃতির সমন্বয়ে এ ফেস্টিভ্যাল হয়ে উঠে দর্শনীয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার অদ্ভুত মাড বা কাঁদা ছুঁড়াছুঁড়ির উৎসব

উৎসবে অনেকেই আসেন সপরিবারে, তাদের জন্য রয়েছে আলাদা ফ্যামিলি জোন। প্রাণবন্ত এসব ইভেন্টের পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন মজাদার প্যাকেজ। বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের জন্য নিখুঁত বিনোদনমূলক ক্রিয়াকলাপে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি উপভোগ করতে পারবেন কে-পপ পারফরমেন্স।

দক্ষিণ কোরিয়ার অদ্ভুত মাড বা কাঁদা ছুঁড়াছুঁড়ির উৎসব

এছাড়াও আপনি কাদা ম্যাসেজ বা রঙিন কাদা দিয়ে পেইন্টিংয়ের মতো সৃজনশীল ক্রিয়াকলাপগুলি উপভোগ করতে পারেন। ফেস্টিভালের সময় সূচী: জুলাই ১৭ তারিখে শুরু হয়ে চলবে জুলাই ২৬ তারিখ পর্যন্ত।

ঠিকানা: 897-15, Daehae-ro, Boryeong-si, Chungcheongnam-do (충청남도 보령시 대해로 89

যেভাবে যাবেন:

বাস: সিউল সেন্ট্রাল বাস টার্মিনাল থেকে বোরিঅং বাস টার্মিনাল পর্যন্ত গিয়ে, সেখান থেকে লোকাল বাস কিংবা টেক্সিতে পৌঁছে যাবেন দেজন বীচে।

ট্রেন: ইঅংসান অথবা ইঅংদোংপো স্টেশন থেকে ট্রেনে করে দেছন ইস্টেশন গিয়ে সেখান থেকে লোকাল বাস কিংবা টেক্সিতে করে পৌঁছে যাবেন দেছন বীচে। তবে এবার করোনা ভাইরাস প্রসার সীমাবদ্ধ করতে, আকর্ষণগুলি বন্ধ বা আংশিক বন্ধ হতে পারে। বুকিংয়ের আগে দয়া করে সরকারী ভ্রমণের পরামর্শ নিন।)

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ