নিউইয়র্কে সিলেট এমসি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসবমুখর বনভোজন

প্রকাশিত: ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

নিউইয়র্কে সিলেট এমসি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসবমুখর বনভোজন

নিউইয়র্কে আনন্দঘন ও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে সিলেট সরকারী এমসি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের এক ব্যতিক্রমী বনভোজন। গত ৮ সেপ্টেম্বর রোববার দিনভর ব্রঙ্কসের ২০০ টিফফানী স্ট্রিটের বেরেট্রো পয়েন্ট পার্কের খোলা মাঠে অনুষ্ঠিত হয় এ বনভোজন। নিউইয়র্ক সহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে বসবাসরত সিলেট এমসি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের দেড় শতাধিক প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা যোগ দেন এ বনভোজনে। এদিন সকাল থেকেই প্রাকৃতিক সৌন্দয্যমন্ডিত অনিন্দ সুন্দর পরিবেশের এই বনভোজন স্থলে সমবেত হন তারা। মেতে ওঠেন বর্ণিল সব আয়োজনে। এক আনন্দঘন আড্ডামুখর পরিবেশ তৈরি হয় পুরো পার্ক জুড়ে।

 

 

এসময় তারা কলেজ জীবনের নানা স্মৃতিচারণসহ জম্পেস আড্ডায় মেতে ওঠেন। ঘুরে ঘুরে উপভোগ করেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। খবর ইউএসএনিউজঅনলাইন’র।

ফ্লাওয়ার অব দ্য ইস্ট খ্যাত সিলেট এমসি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের এ বনভোজন আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয় রং-বেরংয়ের বেলুন উড়িয়ে। তার পর শুরু হয় বনভোজনের বিভিন্ন কার্যক্রম।

 

 

ইভেন্ট কমিটির আহবায়ক তোফায়েল আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং প্রধান সমন্বয়কারী আবদুর রহিম বাদশা, সদস্য সচিব হাবিব ফয়েজি, মুহাম্মদ আলী ও সদস্য মাসুম আহমদের পরিচালনায় কলেজের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বনভোজনে অন্যদের মধ্যে অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মোহাম্মদ কালাম, আব্দুল কাইউম, তোফায়েল চৌধুরী, ওসমান গনি কায়কোবাদ, মোহাম্মদ আফতাব আলী, মজির চৌধুরী, মোহাম্মদ সুলতান কবির, মজনুর রহমান, ফয়জুর রহমান ফটিক, মোহাম্মদ হোসাইন, এনাম উদ্দীন, আজিজ আহমদ চৌধুরী, ইফতেখার সিরাজ, শাহিন আজমল, এস এম গোলাম রব্বানী চৌধুরী, ইব্রাহিম চৌধুরী খোকন, জাহাঙ্গীর করিম, মুহাম্মদ কবির, আমিনুল হক চুন্নু, মুহাম্মদ ফখরুল ইসলাম, মুহাম্মদ এন আহিয়া, জাহাঙ্গীর আলম, মুহাম্মদ আব্দুর রহিম বাদশাহ, এ এস এম নাজমুল হুদা, মুহাম্মদ মুহিত জনি, ইয়াহিয়া বি চৌধুরী, আব্দুল আহাদ, মুরাকিব শামিম, কাজী অদুদ আহমেদ, মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী, এমএ করিম জাহাঙ্গীর, সাখাওয়াত আলী, মঈনুল হক হেলাল, ফরহাদ কবির, আবদুল আহাদ, জসিম উদ্দিন নিপু, আনিসুর রহমান, ডা. আনোয়ারুজ্জামান, ফখরুল ইসলাম, আনোয়ার আহমেদ, ইমরান আলী টিপু, মাহবুব আহমদ, এম এ মুহিত, সাইফুর রহমান, আনিসুর রহমান, ফখরুল ইসলাম, জালাল চৌধুরী, রুহেল চৌধুরী, লতিফ এ চৌধুরী, মুহাম্মদ সেবুল খান মাহবুব, আব্দুর রউফ, আব্দুল মনাফ, মুহাম্মদ নাসির উদ্দীন, সারওয়ার চৌধুরী, ইফজাল আহমদ, মুহাম্মদ বজলুর রশিদ চৌধুরী শিপন, মুহাম্মদ আবু সাঈদ, খালিদ ইসলাম, তানভির আহমদ, মুহাম্মদ উদ্দিন, মুহাম্মদ আলী, আব্দুল হাকিম, সুব্রত তালুকদার, মুহাম্মদ মেহেদি হাসান, ফারহানা নীপা, খাদিজা ইসলাম, ইমরান উদ্দিন, সাহিদুল হাসান তানিম প্রমুখ।

 

 

কলেজের প্রাক্তন শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক এএসএম একে সাব্রী সাবেরীন ও অধ্যাপক বোরহান উদ্দিন আহমেদ।

এছাড়াও ছিলেন ইউরোপিয়ান বাংলাদেশী ফেডরেশন অব চেম্বারস অ্যান্ড ইন্ডাস্টির প্রেসিডেন্ট ড. ওয়ালী তাসের উদ্দিন, অ্যাটর্নি ব্রুস ফিশার, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট মোহাম্মদ এন মজুমদার, বদরুন নাহার খান মিতা, সিরাজ উদ্দিন সোহাগ, আলমাস আলী, সাইদুর রহমান লিংকন, সিপিএ আহাদ আলী, আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী খসরু, হারুন আলী, ডা. শাহানারা আলী, জাহানারা বেগম লক্ষী, মনোয়ারা বেগম মনি, ফেরদৌসী বেগম বিউটি, আলহাজ্ব অলিউর রহমান, ফরিদ আলম পাঠান, বোরহান উদ্দিন, মঞ্জুর চৌধুরী জগলুল, এ ইসলাম মামুন, মামুন রহমান, রেক্সোনা মজুমদার, মাকসুদা আহমেদ, কাজী জাকির, কামাল আহমেদ, আবুল খায়ের আখন্দ প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •