নিউ ইয়র্কে শেষ হলো বাংলা বইমেলা

‘বই হোক আমাদের উত্তরাধিকার’ স্লোগানে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে শেষ হলো ২৭তম বাংলা বইমেলা।

 

নিউ ইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে বেলাজিনো পার্টি সেন্টারে ২২ জুন উদ্বোধনের পর ২৩ ও ২৪ জুন বইমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে জ্যাকসন হাইটসেই পিএস-৬৯ এর মিলনায়তনে।

 

অসাম্প্রদায়িক চেতনা জাগ্রত রেখে প্রবাস প্রজন্মে বাংলা সংস্কৃতির ফল্গুধারা প্রবাহিত করতে সকলে একযোগে কাজের সংকল্প ব্যক্ত করার মধ্য দিয়ে নিউ ইয়র্কে তিন দিনব্যাপী এ বইমেলা শেষ হয়েছে।

 

 

এ বছরের ‘মুক্তধারা/জিএফবি সাহিত্য পুরস্কার’ পেয়েছেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ। ‘চিত্তরঞ্জন সাহা পুরস্কার’ পেয়েছেন প্রকাশনা সংস্থা ‘ইত্যাদি’র কর্ণধার জহিরুল আবেদীন জুয়েল।

প্রবাসে বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতির লালন ও বিকাশে নিরন্তরভাবে সহায়তার জন্যে রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর মো. আনোয়ার হোসেন এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত থেকে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্যে রামেন্দু মজুমদারকে বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন ও বইমেলার আহ্বায়ক নূরন্নবী।

 

ঢাকা, কলকাতা, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের কবি, সাহিত্যিক, লেখক, সাংস্কৃতিক সংগঠকরা এ বইমেলায় অংশ নেন। ২০টিরও বেশি প্রকাশনা সংস্থার স্টল ছিল এবারের আয়োজনে। এবারই প্রথম বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খানের নেতৃত্বে বাংলা একাডেমিও স্টল দেয় এই মেলায়।

 

 

এবারের মেলায় শহীদ জননী জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে ১৯৯২ সালে রাজধানী ঢাকায় সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে অনুষ্ঠিত প্রতিকী গণআদালতে অংশ নেওয়া বিদেশি আইনজীবী টমাস কিটিংকেও সম্মান জানানো হয়। জাহানারা ইমামের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ এক আলোচনায় অংশ নেন তাঁর ছেলে সাইফ ইমাম জামি।

লেখক বঙ্গবন্ধু ও তার অপ্রকাশিত পাণ্ডুলিপির ওপর আলোকপাত করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান। মার্কিন রাজনীতিতে বাঙালির সম্পৃক্ততা জোরালো করার আহ্বান জানিয়ে বক্তব্য দেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার এশিয়ান আমেরিকান বিষয়ক উপদেষ্টা নীনা আহমেদ। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে অংশ নেওয়া ভাষা সৈনিক জসীমউদ্দিন আহমদ ২১ ফেব্রুয়ারির স্মৃতিচারণ করেন।

 

বইমেলা আয়োজনে বিশেষ সহায়তায় ছিল ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’, ‘চ্যানেল আই’, ‘প্রথম আলো’ ও রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর মো. আনোয়ার হোসেন। মেলার সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করেন সংগঠক সেমন্তী ওয়াহেদ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *