নিরাপদ অশ্লীলতা!

এম আর তাহরীম:

সম্মানিত কতিপয় সুশীল ভাষা বিশারদ  সাহেবান-সাহেবানি; সোজা কথা বললেই তো হয় যে, অামরা তোমাদের নিরাপদ জীবন চাই না! নিরাপদ বাংলাদেশ চাই না।

 

অাপনাদের মুখের  ভাষাগুলো বাচ্চারা উচ্চারণ করায় গায়ে-গত্রে চুলকায়, লজ্জায় মরে যেতে ইচ্ছে করে… ইচ্ছে যখন করছে তাহলে চুলকাইতে চুলকাইতে মরে যেতে পারেন!  সম্মানের সহিত জানাযাসহ কবরে বসবাসের সুবর্ণ সুযোগ পাবেন।

 

কতিপয় দু’একটা বাচ্চার ফ্যাস্টুনে লেখা কথাগুলো অামার কাছেও অশ্লীল লেগেছিল! তবে এসব গুটিকয়েক  অশ্লীল কথা প্রচার করা অামাদের বাচ্চাদের বিশাল বা বৃহৎ সরলতা নিয়ে মজিনি, বক্র কথা বলিনি কিংবা উল্লাসে মাতিও নি!

এখন তো দেখি বাচ্চাদের নয় ; অাপনাদের ভাষাগুলোর জন্য অামাদের লজ্জা হচ্ছে!

 

ভন্ড ও ধর্ম ব্যবসায়ীদের নিয়ে লেখা “লালসালু ”

উপন্যাসটি অামার অনেক প্রিয় কিন্তু দুটি শব্দ দেখছেন তো? সেই শব্দ দুটি এতদিন অামার কাছে অশ্লীল মনে হয়নি। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে এগুলোই সবচেয়ে বড় অশ্লীল শব্দ! ঘৃণিত বচন।

 

ওই অশ্লীল কথাগুলো অাপনারাই তো তাদের শিখিয়েছেন, গিলিয়েছেন!  এখন অাবার শেখানো বুলির বমি দেখে ওয়াক্ ওয়াক্ করছেন! নাকি অাপনাদের অশ্লীল কথাগুলো নিরাপদ বলে মনে করেন; বইয়ের মলাটের ভেতরে?  মোটেও না! এই অশ্লীলতা বাচ্চাগুলোর মগজে, শিরায় শিরায় ঢুকিয়ে দিয়েছেন! যা গুটিকয়েক বাচ্চা ব্যবহার করেছে মাত্র!

 

সৌন্দর্যকে পাশ কাটিয়ে এত সুশৃঙ্খল একটা অান্দোলনকে কালি লেপন করছেন, ছোটখাটো দু’একটা নেগেটিভ কথা প্রচার করে… এসব প্রচার না করলে কি অাপনাদের নাক কাটা যেত?

 

কেন বনিতা করে এই অান্দোলনের বিরোধিতা করছেন? যেখানে সরকারের প্রধানমন্ত্রিসহ দেশের ৯৮ ভাগ মানুষ এই মহৎ অান্দোলনককে সাধুবাদ জানাচ্ছেন সেখানে অাপনারা এত মাতাল হয়েছেন কেন? এটা তো কোনো সরকার বিরোধি অান্দোলন নয়; কোনো পুলিশ বিরোধি অান্দোলন নয়! অাপনার, অাপনার বাচ্চার নিরাপদ জীবনের জন্য অান্দোলন,  অাপনার-অামার স্বজনদের জীবনের নিরাপত্তার অান্দোলন। সেটা মগজে অাসছেই না অাপনাদের। অাপনি অাজ বিরোধিতা করছেন, কাল যখন অাপনার বাচ্চা গাড়ির নিচে চাপা পড়বে তখন তো অাপনি একাই মাঠে নেমে দেশের সম্পদ (গাড়ি) ভাংচুর করবেন!

অাপনাদের মত পন্ডিত ও বিশারদদের কে কিছু বলার ভাষা নেই অামরা নগণ্যদের কাছে!

শুধু একটা কথা  বলতে পারি অাপনাদের উদ্দেশ্যে—  ছি! ছি!! ছি!!!

 

তারপরও বলি অাসুন, ছাত্রদের পাশে দাড়াই, দাবি বাস্তবায়নে সরকারকেও সহযোগিতা করি! ছাত্র বাচ্চাগুলো অামাদের, দেশটা অামাদের,  সরকারও অামাদের। একা কারও পক্ষে এত বিশাল একটা পরিবর্তন সম্ভব নয়।  এবং সর্বোপরি অাপনার, অামার বাচ্চাগুলোকে সুন্দর ভাষা শিক্ষা দেই। অশালীনতার কবল থেকে হেফাজতে রাখি। অশ্লীল কথা বলা বন্ধ করি; বাচ্চাদেরকে বাচ্চাদেরও অশ্লীল  কথা মুক্ত রাখি

 

(ছবিতে দেখুন, একাদশ শ্রেণির বাংলা বইয়ের “লাল সালু” উপন্যাসে ছড়িয়ে অাছে অাপনাদের সুশীলতা মাখা অশ্লীল বাক্য গুলো।)

 

—এম অার তাহরীম

৪ অাগষ্ট ২০১৮

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.