নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষার্থীদের সমর্থন

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে জাবালে নূর পরিবহনের বাসচাপায় নিহত দুই স্কুলছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় বিভিন্ন স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেছে।

 

সোমবার দুপুরে কলকাতার পার্ক সার্কাস এলাকায় বঙ্গবন্ধু সরণিতে অবস্থিত বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের সামনে বাংলাদেশের এই ছাত্র আন্দোলনের সমর্থনে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ও যুব সংগঠনের সমর্থকেরা অংশ নেয়।

 

কলকাতা ইউনিভার্সিটি, প্রেসিডেন্সি, যাদবপুর বেথুনসহ কলকাতার বিভিন্ন কলেজ এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ভারতীয় ও বাংলাদেশি শিক্ষার্থী প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নেয়।

 

কলকাতা পার্ক সার্কাসের সাত মাথার মোড় থেকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতৃত্বে ছাত্রসমাজের ব্যানারে এ বিক্ষোভ শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশ পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।

 

এর আগে ভারতীয় সময় দুপুর আড়াইটার দিকে অল ইন্ডিয়া ডিএসও নামে একটি বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের ব্যানারে কয়েকশ ছাত্রছাত্রী পার্ক সার্কাসের রামলীলা মাঠ থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল যাত্রা করে। বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের পুলিশি ব্যারিকেটের সামনে এসে আটকে যায়। সেখানে তারা বাংলাদেশের চলমান ছাত্র আন্দোলনের প্রতি সহমর্মিতা ও সমর্থন জানায় এবং নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করারও দাবি জানায় তারা।

 

যাদবপুরের ছাত্রছাত্রীদের নেতৃত্বে কলকাতা ছাত্রসমাজ ‘পাশে আছি বাংলাদেশ’ শিরোনামে যেখানে আন্দোলনটি হয় সেখানে কুশপুত্তলিকা জ্বালানো হয় এবং কলকাতার যাদবপুরের ছাত্রছাত্রীরা উপ-দূতাবাসের কর্মকর্তাদের হাতে একটি স্মারকলিপি তুলে দেয়।

 

বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে এই ছাত্র সংগঠনগুলোর প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেন কলকাতা পুলিশ প্রশাসন। পার্ক সার্কাস ও বেগবাগান মোড় এই দুই দিক থেকেই তিন স্তরের পুলিশি নিরাপত্তার ও ব্যারিকেটের ব্যবস্থা করা হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.