নিষ্ক্রিয় জলযান জনবল নিয়োগ দিয়ে সেগুলো সচল করতে হবে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১৯ নভে ২০২০ ০১:১১

নিষ্ক্রিয় জলযান জনবল নিয়োগ দিয়ে সেগুলো সচল করতে হবে

সম্পাদকীয়: বিআইডব্লিউটিএ এর ১২৭টি জলযান অলস পড়ে থাকা। এসব যানবাহন ক্রয়ে ব্যয় হয়েছিল ২ হাজার ২১ কোটি টাকা, অথচ এগুলোকে কোনো কাজেই লাগানো যাচ্ছে না। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে জনবল সংকটের কথা। শিপইয়ার্ড ও নদীতে পড়ে থাকা ২৪টি ড্রেজারসহ ১২৭টি জলযানের ভবিষ্যৎ কী, তা নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। জলযানগুলো পরিচালনার জন্য তিন বছর আগে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ১ হাজার ৯১৯টি পদ সৃষ্টির প্রস্তাব করেছিল বিআইডব্লিউটিএ। এর মধ্য থেকে ৩১৮টি পদ কমিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ১ হাজার ৬০১টি পদ সৃষ্টির অনুমোদন দিলেও তা অর্থ মন্ত্রণালয়ে আটকে আছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও নানা ধরনের প্রশাসনিক জটিলতার কারণে অর্থ মন্ত্রণালয় এসব পদের অনুমোদন দেয়নি। তিন বছর আগের একটি প্রস্তাবের কেন এখনও সুরাহা হল না, তা এক প্রশ্ন বটে। এ পর্যন্ত কয়েক দফায় অর্থ মন্ত্রণালয় নৌ মন্ত্রণালয়ের কাছে তথ্য চেয়েছে। নৌ মন্ত্রণালয় পাঁচ দফায় বিভিন্ন তথ্য সরবরাহও করেছে। তবু কেন ফাইল আটকে আছে তা বোধগম্য নয়। জলযানগুলো বেশিদিন ফেলে রাখা হলে সেগুলোর আয়ুষ্কাল এক সময় শূন্যের কোঠায় নেমে আসবে। আমরা তাই জোর দিয়ে বলতে চাই, জনবল সংকটের বিষয়টিকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে অনতিবিলম্বে তার নিষ্পত্তি করা দরকার। ২ হাজার কোটিরও বেশি টাকায় কেনা জলযানগুলো নিষ্ক্রিয় অবস্থায় ফেলে রাখা মোটেও দায়িত্বশীলতার পরিচয় বহন করে না।

এই সংবাদটি 1,227 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •