Wed. Jan 22nd, 2020

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফর বাতিল

1 min read

দিল্লি ডায়ালগ এবং ইন্ডিয়ান ওশান ডায়ালগে অংশ নিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের ভারতে যাওয়ার কথা ছিল। শেষ সময়ে তিনি পূর্বনির্ধারিত এ সফর বাতিল করেছেন।

সফর বাতিলের কারণ হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দপ্তর সূত্র জানিয়েছে, আগামী ১৪ ও ১৬ ডিসেম্বর বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান রয়েছে। সেজন্য তার দেশে থাকা জরুরি। এ কারণেই তিনি সফর বাতিল করেছেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ‌্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা মো. তৌহিদুল ইসলাম এ বিষয়ে রাইজিংবিডিকে বলেন, বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে থাকবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এজন্য তিনি ভারতে যাচ্ছেন না। এছাড়া, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মাদ শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকের ঢাকায় না থাকাও এ সফর বাতিলের কারণ। এছাড়া, আগামী মাসেই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফরের সম্ভাবনা আছে।

মো. তৌহিদুল ইসলাম আরো বলেন, মন্ত্রী না গেলেও বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলের সফর বাতিল হচ্ছে না। মন্ত্রণালয়ের আমেরিকান উইংয়ের মহাপরিচালক ফেরদৌসী শাহরিয়ারের নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রতিনিধিদল দিল্লি সফরে যাচ্ছে।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, জলবায়ু সম্মেলন উপলক্ষে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম মাদ্রিদে যাচ্ছেন। এছাড়া, রোহিঙ্গা গণহত্যার বিচারের দাবিতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার করা মামলার শুনানি চলছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে। এই শুনানি পর্যবেক্ষণ করছে বাংলাদেশ। এ লক্ষ্যে নেদারল্যান্ডসের রাজধানী হেগে বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আছেন পররাষ্ট্র সচিব মো. শহিদুল হক।

এদিকে, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর বাতিলের বিষয়ে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ‌্যমে দাবি করা হয়েছে, ভারতে নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের পর সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে ড. এ কে আব্দুল মোমেন দিল্লি সফর বাতিল করেছেন। যদিও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে এমন কোনো পরিস্থিতির সৃষ্ট হয়নি, যা সফর বাতিলের মতো। বাংলাদেশের বিজয় উৎসবে উপস্থিত থাকতেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারত সফরে যাচ্ছেন না। এর সঙ্গে ভারতের লোকসভায় পাস হওয়া আইনের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

প্রসঙ্গত, লোকসভায় বিল তুলতে গিয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর দেয়া বক্তব্য কিংবা উক্ত আইনের বিষয়ে বাংলাদেশ এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। তবে এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, আমাদের দেশে ধর্মীয় সম্প্রীতি অনেক বেশি। এখানে সব ধর্মের মানুষই ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান বিনা বাধায় উদযাপন করে থাকেন। এ দেশের নিয়ম হচ্ছে- ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। আমরা এই নীতিতেই বিশ্বাস করি।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.