পুলিশের ২টি হেলিকাপ্টার ক্রয়ের জন্য সুপারিশ সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত কমিটির সভাপতির


দশম জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত কমিটির ৪২তম বৈঠক আজ কমিটির মাননীয় সভাপতি মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়।
কমিটির সদস্য এডভোকেট মোঃ রহমত আলী এমপি এবং শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি বৈঠকে অংশগ্রহন করেন। বৈঠকে ৯ম জাতীয় সংসদের প্রথম থেকে শেষ অধিবেশন পর্যন্ত এবং ১০ম জাতীয় সংসদে সম্প্রতি সমাপ্ত অধিবেশন পর্যন্ত সময়ে, সংসদের ফ্লোরে প্রধানমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত প্রতিশ্রুতির বিবরণ ও প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের সর্বশেষ হালনাগাদ এর উপর আলোচনা এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকল্পসমূহের বিবরণ উপস্থাপন করা হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর সকল অধিদপ্তরের বিভিন্ন প্রকল্পসমূহের বিবরণ উপস্থাপন করা হয়। বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি) কর্তৃক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপস্থাপিত বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি বিষয়ে মতামত প্রদান করা হয় বৈঠকে। বৈঠকে জানানো হয়, দশম সংসদে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্টমন্ত্রী কর্তৃক পুলিশ অধিদপ্তরের মোট ৩৪৮টি, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের ১টি. আনসার ও ভিডিপি অধিদপ্তরে ১টি এবং বাংলাদেশ কোস্টগার্ড এর ২টি সহ মোট ৩৫২টি প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে। পুলিশ অধিদপ্তরের প্রতিশ্রুত ৩৪৮টি প্রকল্পের মধ্যে ৫৪টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে, ১২৭টি প্রকল্প আংশিক বাস্তবায়িত হয়েছে, ৫টি বাস্তবায়াধীন রয়েছে এবং ১৫৮টি প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত বাংলাদেশ পুলিশের নতুন আরো ৫০ হাজার জনবল বৃদ্ধির অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে ৪৫,৯৫৬টি পদ সৃজন সম্পন্ন হয়েছে, অবশিষ্ট ৪০৪৪টি পদ সৃজনের কার্যক্রম মন্ত্রনালয়ে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আইএমইডি এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে সুরক্ষা সেবা বিভাগের প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতি ৯৪.৪১% যা জাতীয় অগ্রগতির চেয়ে ০.৫৮% বেশি এবং ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে জননিরাপত্তা বিভাগের প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতি ৯৯.০৫% যা জাতীয় অগ্রগতির চেয়ে ৫.২২% বেশী।
এছাড়া পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি জনাব মোখলেসুর রহমান বাংলাদেশ পুলিশের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সময়ের প্রয়োজনে অন্তত দুটি হেলিকপ্টারের প্রয়োজনীয়তা উল্ল্যেখ করেন। এতে সমর্থন জানান জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব। কমিটির সভাপতি মহোদয় পুলিশের হেলিকপ্টারের বিষয়ে একমত পোষণ করেন। প্রকল্পের মান ঠিক রেখে অসমাপ্ত প্রকল্পসমূহের কাজ যথাসময়ে সম্পন্ন করার সুপারিশ করা হয়।
জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব, সুরক্ষা ও সেবা বিভাগের সচিবসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।