পোরশায় আমন কাটা-মাড়াই শুরু

প্রকাশিত:রবিবার, ০৮ নভে ২০২০ ১১:১১

পোরশায় আমন কাটা-মাড়াই শুরু

এম রইচ উদ্দিন,পোরশা (নওগাঁ) :
চলতি আমন মৌসুমে নওগাঁর পোরশায় উৎসাহ নিয়ে আমন ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজ শুরু করেছেন কৃষকরা। উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা গেছে কৃষকরা তাদের আবাদকৃত ধান কাটা নিয়ে ব্যাস্ত। ধানের দাম ভালো থাকায় উৎসাহ নিয়ে কাটা-মাড়াইয়ের কাজ শুরু করেছেন তারা। বর্তমান বাজারে ধানের দাম আশানুরূপ হওয়ায় কৃষকরা বেশ আমেজেই আছেন। এবছর সঠিক সময়ে বৃষ্টি হওয়ায় ধানের ফলন ভালো হচ্ছে। এজন্য ধানের কাঙ্খিত উৎপাদন হতে পারে বলে তারা ধারনা করছেন। গত বছরের তুলনায় বিঘাপ্রতি ৫-৬মন ধান বেশী হতে পারে বলে কৃষকরা বলছেন। জালুয়া গ্রামের কৃষক জসিম উদ্দিন, বারিন্দার হুমায়ন কবির ও বড়রনাইল গ্রামের কৃষক মমিনুর রহমান জানান, ধানে কীটনাশক বেশী ব্যবহার করার কারনে এবার উৎপাদন খরচ একটু বেশী হয়েছে। বাজারে প্রতিমণ ধান বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫০ থেকে ১ হাজার ১০০ টাকায়। ফলে ধান বিক্রি করে তাদের উৎপাদন খরচ উঠবে এবং এবারে তারা লাভের আশাও করছেন। এছাড়াও চলতি মৌসুমে মাঠ থেকে ধান কাঁটা ও মাড়াই এর জন্য শ্রমিকদের বিঘাপ্রতি ৩-৪ মণ ধান দিতে হবে। এসব খরচ বাদ দিলে দেখা যাবে কিছু লাভ থাকবে। তারা আরও জানান, ধার-দেনা করে ও বাজার থেকে বাঁকীতে কীটনাশক নিয়ে জমিতে প্রয়োগ করা হয়েছে। আর ধান বিক্রি করে দেনা শোধ করার কথা। বাজারে ধানের দাম ঠিক থাকলে দেনা পরিশোধ ও তাদের সংসার পরিচালনা করা সহজ হবে বলে তারা মনে করছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবদ মাহফুজ আলম জানান, এবারে উপজেলায় ১৬ হাজার ৭১০হেক্টর জমিতে আমন লাগানো হয়েছে। এক্ষত্রে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে বিঘা প্রতি গড়ে ১৮-২০মন। তবে বন্যার কারনে আমাদের এ উপজেলার কিছু এলাকায় ধান ডুবে যাওয়ায় ৮৩ হেক্টর জমিতে কোন ধান উৎপাদন হয়নি। তার পরেও ধানের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে তিনি আশা করছেন। ধানের দাম ভালো থাকায় কৃষকগণ খুশি বলে তিনি মনে করছেন। তবে সব ক্ষেত্রে সরকারের সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত বিবেচিত হবে বলে তিনি জানান।

এই সংবাদটি 1,242 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •