পৌষ সংক্রান্তিতে গোপালগঞ্জে পিঠার আয়োজন

প্রকাশিত: ৭:৫৭ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৫, ২০২০

 

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে গোপালগঞ্জে পৌষ সংক্রান্তি পালিত হয়েছে। জেলার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাড়ীতে বাড়ীতে চলে পিঠা তৈরী। পৌষ সংক্রান্তি বাঙালি সংস্কৃতিতে একটি বিশেষ উৎসবের দিন।

জানাগেছে, পঞ্জিকা বর্ষ অনুযায়ী পৌষ মাসের শেষ দিনে পৌষ সংক্রান্তি পালিত হয়। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নানা আচার-অনুষ্ঠান পালন করলেও ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’ ধারণায় বেড়ে ওঠা বাঙালি জাতির কাছে আজ এটি সার্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে। প্রাচীনকাল থেকেই এ দিনটিতে ঘরে ঘরে চলে নতুন চালের পিঠা-পায়েসের আয়োজন। পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে গোপালগঞ্জের সতানত ধর্মবলম্বীদের বাড়ীর উঠানে চলে রং ও আবীর দিয়ে নানা ধরনের আল্পনা আঁকা। যা ফুটিয়ে তুলছে বাংলার চিরচায়িত ঐতেহ্যকে। পরে বিকালে ঘরে ঘরে নারীরা একত্রিত হয়ে নতুন চালের গুড়া দিয়ে তৈরী করেন নানা ধরনের পিঠা। পুলি, চিতাই, পাটি সাপটা, চুসি পিঠা। খেজুরের রস আর গুড় দিয়ে তৈরী করা এসব পিঠার ঘ্রান নজর কড়বে সবার। পরে প্রতিবেশির বাড়ীতে বাড়ীতে দেয়া হবে তৈরী করা পিঠা। যা সম্প্রতির বন্ধনকে আরো দৃঢ় করে। এছাড়া জেলার বিভিন্ন গ্রামে অনুষ্ঠিত হয় পৌষ সংক্রান্তির মেলা। এসব মেলায় মাটির খেলা, আসবাববত্র, মিষ্ঠিসহ বিভিন্ন দোকান বসে।

গৃহবধূ সম্পা সাহা জানান, অনেক বছর আগে থেকে আমাদের পরিবারে পৌষ সংক্রান্তি পালন হয়ে আসছে। আমার শ্বাশুড়ি মার কাছ থেকে এসব পার্বন পালন করতে শিখেছি। পৌষ সংক্রান্তিতে বাড়ীর উঠানে নকশী আঁকা হয়েছে। পরে সন্ধ্যায় বিভিন্ন পিঠা তৈরী করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •