Fri. Dec 6th, 2019

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ‘বানিয়ে কিছু বলেননি’

1 min read

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কাশ্মীর নিয়ে তাকে মধ্যস্থতার অনুরোধ করেছেন বলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প যে মন্তব্য করেছেন তা ‘বানিয়ে বলেননি’ বলে জানিয়েছেন তার এক শীর্ষ উপদেষ্টা।

 

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্পের প্রধান অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ল্যারি কাডলো একথা বলেছেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

 

সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে তিনি একথা বলেন। মোদী তাকে অনুরোধ করেছেন বলে ট্রাম্প যে মন্তব্য করেছেন, তা ‘বানিয়ে বলা’ কি না,ওই সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের উত্তরে কাডলো বলেন, “এটি খুব অশিষ্ট প্রশ্ন। প্রেসিডেন্ট বানিয়ে কিছু বলেন না।”

 

সোমবার হোয়াইট হাউসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প ওই মন্তব্য করেছিলেন।

 

কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের বিরোধ মেটাতে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালনের জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অনুরোধ জানিয়েছেন উল্লেখ করে ইমরানকে ট্রাম্প বলেন, “আপনি আমার মধ্যস্থতা চাইলে আমি খুবই আনন্দের সঙ্গে তা করব। আমার যদি এ ব্যাপারে কিছু করার থাকে তো বলুন।”

 

দুই সপ্তাহ আগে (জুনে) জাপানে জি২০ সম্মেলনের ফাঁকে মোদীর সঙ্গে কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে তার কথা হয়েছে এবং ওই সময়ই মোদী তাকে ওই অনুরোধ জানান বলে ট্রাম্প উল্লেখ করেন।

 

ট্রাম্প বলেন, “দুই সপ্তাহ আগে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে আমার দেখা হয়েছিল। আমরা এ বিষয়ে কথা বলেছিলাম। প্রকৃতপক্ষে তিনি বলেন ‘আপনি কি মধ্যস্থতাকারী বা মিমাংসাকারী হতে পারবেন’, আমি বললাম ‘কোন বিষয়ে’, তিনি বললেন ‘কাশ্মীর’।

 

“বহু বহু বছর ধরে এই সমস্যা চলার কারণে, আমার মনে হল তারা এর সমাধান দেখতে চায় এবং আপনিও (ইমরান) হয়তো এর সমাধান দেখতে চান। যদি সাহায্য করতে পারি, আনন্দের সঙ্গে মধ্যস্থতাকারী হব আমি। দুটি অত্যন্ত স্মার্ট পরাক্রমশালী রাষ্ট্র ও তাদের অত্যন্ত দক্ষ নেতারাও এটি সমাধান করতে পারছে না, এটি অবিশ্বাস্য।”

 

উত্তরে ইমরান বলেন, “যদি মধ্যস্থতা করে এই পরিস্থিতির সমাধান করতে পারেন তাহলে শত কোটিরও বেশি মানুষের আশীর্বাদ পাবেন আপনি।”

 

কিন্তু ট্রাম্পের দাবি পুরোপুরি অস্বীকার করেছে ভারত। কাশ্মীর সমস্যাকে তারা ‘দ্বিপাক্ষিক সমস্যা’ মনে করে এবং এ বিষয়ে তৃতীয় কোনো পক্ষের জড়ানোর দরকার নেই বলে মন্তব্য করেছে দিল্লি।

 

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, “প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এ ধরনের কোনো অনুরোধ মার্কিন প্রেসিডেন্টকে করেননি। কাশ্মীর নিয়ে কোনো আলোচনা হলে তা দ্বিপাক্ষিক স্তরেই হবে।”

 

ট্রাম্পের দাবি নিয়ে ভারতের লোকসভার বিরোধীদলীয় সদস্যরা প্রতিবাদ শুরু করার পর দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেছেন, “আমি এই হাউসকে সুনিশ্চিতভাবে জানাচ্ছি, প্রধানমন্ত্রী মোদী মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে এ ধরনের কোনো অনুরোধ করেননি। আমি আবার বলছি, মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে এ ধরনের কোনো অনুরোধ করেননি প্রধানমন্ত্রী মোদী।”

 

কাশ্মীরকে পাকিস্তান সব সময় আন্তর্জাতিক সমস্যা হিসেবে দেখাতে চায় এবং এ কারণে ট্রাম্পের বক্তব্যে ইমরানের খুশি হওয়ার কথা বলে মন্তব্য করেছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

 

অপরদিকে এ বিরোধকে ‘দ্বিপাক্ষিক সমস্যা’ মনে করা ভারতের জন্য ট্রাম্পের মন্তব্য অত্যন্ত অস্বস্তিকর বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি।

 

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.