বনোপোল স্থলবন্দর র্দুগা পূজা উপলক্ষে চার দনি আমদান-িরফতানি বন্ধ থাকবে

প্রকাশিত:শনিবার, ২৪ অক্টো ২০২০ ০২:১০

বনোপোল স্থলবন্দর র্দুগা পূজা উপলক্ষে চার দনি আমদান-িরফতানি বন্ধ থাকবে

 

বনোপোল প্রতনিধিি :
বনোপোল স্থলবন্দর দয়িদর্েুগা পূজা উপলক্ষে চার দনি আমদান-িরফতানি বন্ধ থাকব।ে এ সময় ভারতরে পট্রোপোল বন্দররে সঙ্গে দশেরে আমদান-িরফতানি বাণজ্যি বন্ধ থাকব।ে পূজার ছুটরি কারণে অনকে শল্পিপ্রতষ্ঠিানে কাঁচামালরে সংকট দখো দতিে পার।ে তবে এ ছুটতিে বনোপোল কাস্টম হাউস, বন্দরে পণ্য খালাস প্রক্রযি়া এবং বাংলাদশে ভারতরে মধ্যে পাসর্পোটযাত্রী চলাচল স্বাভাবকি থাকব।ে

ভারতরে পট্রোপোল বন্দর সঅ্যািন্ডএফ এজন্টে স্টাফ ওয়লে ফয়োর অ্যাসোসয়িশেনরে সাধারণ সম্পাদক র্কাতকি চক্রর্বতী জানান, র্দুগা পূজা উপলক্ষে ভারতে ২৩ অক্টোবর থকেে ২৬ অক্টোবর র্পযন্ত ছুটি থাকব।ে এ সময়ে পট্রোপোল বন্দর দয়িে বনোপোল বন্দররে সঙ্গে সব ধরনরে আমদান-িরফতানি বাণজ্যি বন্ধ থাকব।ে আগামী মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) সকাল থকেে আবারও আমদান-িরফতানি বাণজ্যি চালু হব।ে

বনোপোল সঅ্যািন্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসয়িশেনরে সাধারণ সম্পাদক সাজদেুর রহমান বলনে, পট্রোপোল বন্দর দয়িে র্দুগা পূজা ও বাংলাদশেে সাপ্তাহকি ছুটরি কারণে টানা চার দনি আমদান-িরফতানি বাণজ্যি বন্ধ থাকবে বলে ওপাররে সঅ্যািন্ডএফ থকেে পত্র দয়িে আমাদরে জানানো হয়ছে।ে

বনোপোল কাস্টম চকেপোস্ট র্কাগাে শাখার রাজস্ব র্কমর্কতা সাইফুর রহমান মামুন বলনে, ওপারে র্দুগা পূজার ছুটি থাকায় ২৩ অক্টোবর সকাল থকেে ২৬ অক্টোবর র্পযন্ত দু’দশেরে মধ্যে আমদান-িরফতানি বন্ধ থাকবে বলে ওপাররে কাস্টম র্কতৃপক্ষ ও সঅ্যািন্ডএফ এজন্টেরা আমাদরেকে চঠিি দযি়ে জানয়িছেনে। আমদান-িরফতানি বন্ধ থাকলওে বন্দরে লোড-আনলোড ও কাস্টমসরে র্কাযক্রম স্বাভাবকি নয়িমে চলব।ে ২৭ অক্টোবর সকাল থকেে পুনরায় আমদান-িরফতানি শুরু হবে বলে জানান তনিি
লামায় মৌচাক কো-অপারেটিভ এর ২৬ তম সাধারণ সভা

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা :
দক্ষিণ চট্টগ্রামের সর্ব-বৃহৎ সমবায় সমিতি “লামা মৌচাক কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ” এর ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (২৩ অক্টোবর ২০২০ইং) সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত লামা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উক্ত বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সকালে জাতীয় ও সমবায় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানে কার্যক্রম শুরু হয়। সাধারণ সভায় সমিতির ৩ সহ¯্রাধিক নারী ও পুরুষ সদস্য অংশ নেয়। মৌচাক সেক্রেটারী মোঃ হানিফ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লামা মৌচাক কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর চেয়ারম্যান আব্দুর শুক্কুর।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ কালব্ লিঃ এর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জোনাস ঢাকী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিলেন, লামা উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল, লামা পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, বাংলাদেশ কালব্ লিঃ এর ভাইস চেয়ারম্যান ফাহমিদা সুলতানা সীমা, সেক্রেটারী আলফ্রেড রায়, মৌচাক এর প্রতিষ্ঠাতা ও বাংলাদেশ কালব্ লিঃ ট্রেজারার এম. জয়নাল আবেদীন।
আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিলেন, কালব্ লিঃ ‘ক’ অঞ্চলের ডিরেক্টর একরামুল হক, ‘গ’ অঞ্চলের ডিরেক্টর মোঃ আরিফ হাসান, ‘ঘ’ অঞ্চলের ডিরেক্টর মোঃ আব্দুল মান্নান লোটাস, ‘ঙ’ অঞ্চলের ডিরেক্টর মোঃ আরিফ মিয়া, ‘ছ’ অঞ্চলের ডিরেক্টর মোঃ হেলাল উদ্দিন, ‘জ’ অঞ্চলের ডিরেক্টর বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুস ছাত্তার, কালব্ লিং এর জেনারেল ম্যানেজার (ভারপ্রাপ্ত) রোমেল এইচ ক্রুজ, কালব্ লিঃ এর প্রাক্তন ডিরেক্টর নূর মোহাম্মদ, মোঃ শফিউল আলম, মৌচাকের সাবেক চেয়ারম্যান এম. তমিজ উদ্দিন সহ প্রমূখ।
সাধারণ সভায় উপস্থিতিদের স্বাক্ষর গ্রহণ, জাতীয় ও সমবায় পতাকা উত্তোলন, অতিথিদের আসন গ্রহণ, ধর্মীয় গ্রন্থ পাঠ, সভাপতির স্বাগত বক্তব্য, বিগত সাধারণ সভার কার্যবিবরণী অনুমোদন, ব্যবস্থাপনা পরিষদ, ঋণদান, পর্যবেক্ষণ ও আভ্যন্তরীণ নিরীক্ষা কমিটির প্রতিবেদন অনুমোদন, ২০১৯-২০ অর্থ বছরের নিরীক্ষিত আয়-ব্যয় হিসাব অনুমোদন, লভ্যাংশ বন্টন প্রস্তাব অনুমোদন, ২০২০-২১ সালের বাজেট অনুমোদন, র‌্যাফেল ড্র, পুরস্কার বিতরণ ও অতিথিরা বক্তব্য প্রদান করেন।
মৌচাক সূত্রে জানা যায়, লামা মৌচাক কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ ১৯৯২ সালের ১লা জুলাই প্রতিষ্ঠিত হয়। ১২ জন সদস্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে বর্তমানে উক্ত প্রতিষ্ঠানের সাধারণ সদস্য সংখ্যা প্রায় ১২ হাজার (সকল বিভাগ মিলে)। সমবায় সমিতি’র উজ্জ্বল আরেক দৃষ্টান্ত এই প্রতিষ্ঠানের বর্তমান মূলধন প্রায় ২৮ কোটি টাকা।
সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা এম. জয়নাল আবেদীন জানান, “টেকসই ক্রেডিট ইউনিয়ন” এই স্বপ্ন নিয়ে ‘সদস্যদের জীবনমান উন্নয়নের জন্য গুনগত সেবা নিশ্চিত করন’ উদ্দেশ্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে মৌচাক। মৌচাক কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর আজকের এই সফলতার অংশীদার সংস্থাটির সকল সাধারণ সদস্য, পরিচালনা কমিটি ও কর্মকর্তা কর্মচারীরা। আরো নতুন নতুন হাতে নিয়ে মৌচাক এগিয়ে যাবে এই স্বপ্ন আমাদের।
প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান আব্দুর শুক্কুর বলেন, মৌচাক বর্তমানে লামা উপজেলার পাশাপাশি সমগ্র বান্দরবান পার্বত্য জেলায় কাজ করে। এছাড়া পার্শ্ববর্তী চকরিয়া উপজেলায় আমাদের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। লাভজনক এই প্রতিষ্ঠানটি প্রতি বছর সাধারণ সদস্যদের মাঝে তাদের লভ্যাংশ বন্টন করে দেয়। আমাদের চলমান সেবা সমূহ শেয়ার ও মূলধন সংগ্রহ, সাধারণ সঞ্চয়, শিশু সঞ্চয়, ডিপিএস, লাখপতি সঞ্চয়, বাধ্যতামূলক সঞ্চয়, উৎসব সঞ্চয়, প্রতিষ্ঠানিক সঞ্চয়, এফডি, মাসিক মূনাফা সঞ্চয় আমানত, পেনশন সঞ্চয় স্কীম, দৈনিক সঞ্চয়, ঝুঁকি মোকাবেলা সঞ্চয়, স্বপ্ননীড় সঞ্চয়, লাইভ সার্বিস বেনিফিট, বীমা সুবিধা, চিকিৎসা সহায়তা, বৃত্তি ও প্রশিক্ষণ।
উল্লেখ্য, চলমান করোনা পরিস্থিতি ও সাধারণ সভায় উপস্থিত সকল সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে পূর্বের কমিটি আরো ১ মেয়াদে সমিতির ব্যবস্থাপনা পরিষদের দায়িত্ব পালন করবে বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পূর্বের ব্যবস্থাপনা কমিটির ডিরেক্টর সুলতান আহমদকে পরিবর্তন করে নতুন কমিটিতে থোয়াইনু মার্মাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ