বরিশালে নতুন বছরে উন্মোচিত হতে যাচ্ছে আরো দুটি সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

মোঃআরিফ সুমন,বরিশাল ব্যুরো ঃ

বরিশাল অঞ্চলের চাহিদা পূরনে শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন বছরের জুন-জুলাইতে উন্মোচিত হতে যাচ্ছে আরো দুটি সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
একটি হচ্ছে রুপাতলী শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত মাধ্যমিক বিদ্যালয় আর অন্যটি হচ্ছে কাউনিয়া শহীদ আরজুমনি সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়। ইতিমধ্যে ভবন দুটির নির্মান কাজ শেষ পর্যায় চলছে। আগামী বছরের জুন-জুলাই মাসে অস্থায়ী ক্যাম্পাস থেকে শিক্ষার্থীদের সেখানে শিফট করা হবে বলে জানালেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বরিশাল অঞ্চলের উপ-পরিচালক ড.মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান।
জানাগেছে, বরিশালবাসীর শিক্ষার্থীদের চাহিদা অনুযায়ী প্রকল্পের আওতায় নগরীর রুপাতলী ও কাউনিয়া হাউজিং এলাকায় প্রকল্পের মাধ্যমে দুটি সরকারী মাাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মান কাজ শুরু হয়।
এ দিকে গত বছর নতুন বিদ্যালয় দুটিতে ৬ষ্ঠ শ্রেনী থেকে নবম শ্রেনীতে ৬০ জন করে প্রতি শিফটে শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয়। তাতে দুটি বিদ্যালয় ৪৯৩ জন শিক্ষার্থী স্থান পায়। ভবন না থাকায় ইউনিভার্সিটির অস্থায়ী কার্যালয় তাদের শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকে।
আলাপকালে নব নির্মিত কাউনিয়া শহীদ আরজুমনি সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিক সাবিনা ইয়াছমিন বলেন, নতুন বিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হয়ে গেছে। বরিশালবাসীর শিক্ষার্থীদের চাহিদায় এ দুটি বিদ্যালয় আর্শীবাদ। শিক্ষার্থীদের ভর্তিতে যে ক্রাইসেস ছিল তা নতুন দুটি বিদ্যালয় হলে লাঘব হবে। বর্তমানে ৮ জন শিক্ষক নিয়ে ক্লাস চলছে। আগামীতে ৬ষ্ঠ শ্রেনী থেকে দশম শ্রেনী পর্যন্ত হতে যাচ্ছে। তাই আরো জনবল দরকার। এখানে ল্যাব ,পিয়ন ,নাইট গার্ড ,সুইপার নেই বর্তমানে কক্ষ সমস্যায় ও জর্জরিত। আগামীতে তৃতীয় শ্রেনীতে শিক্ষার্থী ভর্তি হবে কিনা তা বলা সম্ভব নয়। বিভিন্ন সমস্যার মধ্যেই আমাদের বিদ্যালয় চালিয়ে যেতে হচ্ছে। নতুন বিদ্যালয় দুটো লিফট সমৃদ্ধ সহ অনেক সুযোগ সুবিধা থাকবে।
অন্যদিকে যোগাযোগ করলে রুপাতলী শহীদ অব্দুর রব সেরনিয়াবাত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পাপিয়া জেসমিন জানান, নতুন ভবনে না যাওয়া পর্যন্ত কিছু সমস্যা হচ্ছে। এখানে ২৫৩ জন শিক্ষার্থী নিয়ে অস্থায়ী কার্যালয় আমাদের কার্যক্রম চলছে। বিদ্যালয়ের যে অবকাঠামো তা অস্থায়ী ক্যাম্পাসে নেই তাই। নতুন ভবনে গেলে শাখা হবে। বর্তমান সমস্যা সামনে উত্তোরন হবে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বরিশাল অঞ্চলের উপ-পরিচালক ড.মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিফট করতে আগামী জুন-জুলাই লেগে যাবে। তার পরে সেকশন করা হবে। এখন স্বল্প পরিসরে অ-পূনাঙ্গ ভাবে কার্যক্রম চলছে কিন্তু নতুন ভবন ৭ম তলা হবে। সেখানে লিফট ব্যবস্থা থাকবে। ল্যাব থাকবে। আপততো ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে ভর্তি হচ্ছে না। নতুন ভবনে থ্রি থেকে দশম শ্রেনী পর্যন্ত হবে। নতুন ফার্নিচার সহ ডিজিট্যাল ক্লাস থাকবে । বলতে গেলে শিক্ষার্থীদের জন্য এ দুটি নতুন বিদ্যালয় আর্শীবাদ স্বরুপ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.