বরিশাল জেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৬ ১ ভোটে হারিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারজানার চমক!

 

বরিশাল প্রতিনিধি:

জেলা পরিষদ নির্বাচনে বাবুগঞ্জে আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থীকে মাত্র ১ ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে চমক দেখিয়েছেন বরিশাল জেলার ৭ নং ওয়ার্ডের (বাবুগঞ্জ) সদস্য ও স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা বিনতে ওহাব। নির্বাচনে হাতি প্রতীক নিয়ে তিনি ৩৯ ভোট পেয়ে বাবুগঞ্জ উপজেলা থেকে বরিশাল জেলা পরিষদের ৭ নং সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ওই নির্বাচনে তালা প্রতীকে ৩৮ ভোট পেয়েও মাত্র ১ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্রলীগ সভাপতি মৃধা মুহঃ আক্তার-উজ-জামান মিলন। এছাড়াও ওয়ার্কার্স পার্টি সমর্থিত প্রার্থী অধ্যাপক গোলাম হোসেন তার টিউবয়েল প্রতীকে পান ৩ ভোট। ওই নির্বাচনে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৭৭ জন সদস্য এবং উপজেলা পরিষদের ৩ সদস্যসহ মোট ৮০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ওই নির্বাচন নিয়ে গত কয়েকদিন থেকে উপজেলায় টানটান উত্তেজনা ও নানা অনিশ্চয়তা-শঙ্কা তৈরি হলেও শেষ পর্যন্ত প্রশাসনের কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া সুষ্ঠুভাবে শতভাগ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। বাবুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে দুপুর ২টায় ভোট গ্রহন সমাপ্ত হলে গননা শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন নির্বাচনের প্রিসাইডিং অফিসার অভিজিৎ শীল। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অফিসার দীপক কুমার রায়, উপজেলা নির্বাচন অফিসার আবদুল হাই আল হাদী, উপজেলা চেয়ারম্যান এস.এম খালেদ হোসেন স্বপন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি কাজী ইমদাদুল হক দুলাল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিফাত জাহান তাপসী ছাড়াও প্রতিদ্বন্দ্বী ৩ প্রার্থী ও তাদের এজেন্টরা উপস্থিত ছিলেন। নির্বাচন চলাকালে ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান। গতকাল ওই নির্বাচনে বাবুগঞ্জ কেন্দ্র থেকে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মাইদুল ইসলাম ৫০ এবং প্রতিদ্বন্দ্বী খান আলতাফ হোসেন ভুলু ৩০ ভোট পান। এছাড়াও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদের প্রার্থী খালেদা হক ৪১ এবং সেলিনা বাদল ৩৯ ভোট পান। উল্লেখ্য, মাত্র ১ ভোটে ভাগ্য নির্ধারিত হওয়া ওই শ্বাসরুদ্ধকর নির্বাচন নিয়ে জনমনে নানা উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *