বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শপথ নিতে হবে : নিউইয়র্কে ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় বিএনপি নেতৃবৃন্দ

প্রকাশিত:বুধবার, ১৮ নভে ২০২০ ০৬:১১

বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শপথ নিতে হবে : নিউইয়র্কে ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় বিএনপি নেতৃবৃন্দ

নিউইয়র্ক: বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী বেবী নাজনীন আয়োজিত ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ নভেম্বর মাসকে বিএনপির জন্য চেতনার মাস হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, এই মাসে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা এবং বহুদলীয় গণতন্ত্র দিয়েছিলেন। বেগম খালেদা জিয়া সংসদীয় গণতন্ত্র দিয়েছেন এবং তারেক রহমান নব্য স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এই চেতনার মাসেই বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের শপথ গ্রহণ করতে হবে। গত ১৫ নভেম্বর নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে ভার্চ্যুয়াল সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

বেবী নাজনীনের সভাপতিত্বে এবং বিএনপি নেতা ফিরোজ আহমেদের পরিচালনায় ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নজরুল ইসলাম খান ও সেলিমা রহমান, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মোহাম্মদ আব্দুস সালাম, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান, যুব দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খোকন, জাসাস’র প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম আকন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব এম এ মালেক, সাধারণ সম্পাদক কয়সার এম আহমেদ, সাদিক রহমান, সৌদী আরব বিএনপির সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব।
সভা মঞ্চে ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কয়সর এম আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু, সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি গিয়াস আহমেদ, সাবেক সহ সভাপতি আলহাজ্ব সোলায়মান ভুইয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী শাখাওয়াত হোসেন আজম, যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমেদ, বিএনপি নেতা এবাদুর রহমান, কোকো স্মৃতি পরিষদের সভাপতি শাহাদত হোসেন রাজু ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম।
ভার্চ্যুয়াল সভায় অন্যান্যের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু, মঞ্জুর আহমেদ চৌধুরী, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ আনোয়ারুল ইসলাম, হেলাল উদ্দিন, সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসীম ভুইয়া, যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী, যুব দলের সাবেক সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক এম এ বাতিন, নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সভাপতি মাওলানা অলিউল্যাহ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাঈদুর রহমান সাঈদ, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক শাহীন, কানাডা বিএনপির সভাপতি ফয়সল আহমেদ, জর্জিয়া বিএনপির সহ সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মাহবুব আহমেদ, সাবেক ছাত্র নেতা আতাউর রহমান আতা, নিউইয়র্ক সিটি বিএনপির সভাপতি সেলিম রেজা, নিউইয়র্ক সিটি বিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা বশির আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, সহ সভাপতি আহবাব চৌধুরী খোকন, মোহাম্মদ আবুল কাশেম, নিউইয়র্ক স্টেট যুব দলের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভুইয়া, ঢাকা মহানগর যুব দলের (দক্ষিণ) সাবেক সহ সভাপতি জাহাঙ্গীর হাসাইন, বিএনপি নেতা রাফেল তালুকদার, সালেহ আহমেদ মানিক, জাহাঙ্গীর সরওয়ার্দী, ইঞ্জিনিয়ার হারুন অর রশীদ, সাজেদুল ইসলাম অরিক, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভুইয়া, এডভোকেট আবু তাহের, আব্দুল ওয়াদুদ কবির, জাহাঙ্গীর আলম, চাকসুর সাবেক ভিপি নাজিম উদ্দিন, ওহিদুজ্জামান নিলু, মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, মোহাম্মদ মহসীন (লাল), চৌধুরী সালেহ, ব্রঙ্কস বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুর রহিম, সাইফুর খান হারুন, খলকুর রহমান, ফ্রান্স বিএনপি নেতা এমতাজ আলো, ওয়াশিংটন বিএনপির আহবায়ক হাফিজ খান সোহায়েল, ভার্জিনিয়া বিএনপির আহবায়ক মোহাম্মদ জহির খান, ফ্লোরিডা বিএনপির আহবায়ক মোহাম্মদ চাকলাদার, সদস্য সচিব ইলিয়াস খান, সাবেক সভাপতি দিনাজ খান, সাবেক সভাপতি আব্দুর রশিদ খান হারুন, জর্জিয়া বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মাহবুব হোসেন, মেরিল্যান্ড বিএনপি আহবায়ক তোফায়েল আহমেদ, সদস্য সচিব মোহাম্মদ হোসেন, এস এম ফেরদৌস, হেলাল উদ্দিন, ফ্লোরিডা বিএনপি নেতা ইলিয়াস খান, ভার্জিনিয়া বিএনপি নেতা নেছার আহমেদ, জর্জিয়া বিএনপি নেতা সাহেল খান, ডিউক খান, ফ্লোরিডা বিএনপি নেতা ফারুক সরকার, নিউজার্সি বিএনপির আহবায়ক সৈয়দ জুবায়ের আলী, কাওসার আহমেদ, সদস্য সচিব আলাউর রহমান খন্দকার, হারুণ অর রশীদ, মেরিল্যান্ড বিএনপি নেতা জহির খান, ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপি সভাপতি বদরুল আলম চৌধুরী, লন্ডন বিএনপি নেত্রী ডালিয়া লাকুরিয়া, এমদাদ তরফদার, আবু চৌধুরী, জাহিদ খান, বিএনপি নেতা খসরু, আব্দুল বাসিত, মালয়েশিয়া বিএনপির সভাপতি বাদল খান, শ্রমিক দল কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা রফিকুল ইসলাম দুলাল, আটলান্টা থেকে জব্বর মোহন, যুক্তরাজ্য থেকে স্বপ্না মনি, বেলজিয়াম থেকে ঝিন্টু আহমেদ, শরিফ উদ্দিন, কানাডা থেকে মুজিবুর রহমান প্রমুখ।
ভার্চ্যুয়াল এই আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বহির্বিশ্ব বিএনপির প্রায় শতাধিক নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন। সভাটি ভার্চ্যুয়াল মহা সভায় রূপ লাভ করে।
সভায় শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফেরাত, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমানের সুস্থ্যতা কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। এ ছাড়াও দেশে-প্রবাসে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে যারা অসুস্থ্য তাদের সুস্থ্যতা কামনা করা হয় এবং যারা সম্প্রতি প্রাণ হারিয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা আনসারুল করিম।

এই সংবাদটি 1,229 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ