বাঙ্গালী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙ্গে নতুন এলাকা প্লাবিত

প্রকাশিত:সোমবার, ২৭ জুলা ২০২০ ১১:০৭

বাঙ্গালী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙ্গে নতুন এলাকা প্লাবিত

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) :
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের বালুয়া গ্রামের বাঙ্গালী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধে আরো এক স্থানে ভেঙ্গে গিয়ে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। এর ফলে পাশর্^বর্তী বোচাদহ এলাকায় এক দিন আগে একইভাবে ভেঙ্গে যাওয়া অংশ দিয়ে প্রবল বেগে পানি ঢুকে পড়ছে মহিমাগঞ্জ ইউনিয়ন সহ পাঁচটি ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকায়। করোনার প্রাদূর্ভাব আর আসন্ন ঈদের পূর্বমূহুর্তে বাঁধটির ভেঙ্গে যাওয়া অংশ দুটি নতুন করে দুশ্চিন্তায় ফেলেছে মহিমাগঞ্জ বাজারসহ কয়েকটি ইউনিয়নের মানুষকে। সোমবার বিকাল ৫টায় বালুয়া গ্রামের বাঙ্গালী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙ্গে যায় বলে স্থানীয়রা জানান।
এলাকাবাসীর অভিযোগে জানা গেছে, এ দুটি পয়েন্টে কয়েকবার ভাংগনের পর এলাকার লোকজনের আবেদনের প্রেক্ষিতে পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঙ্গালী নদীর এ বাঁধটি মেরামত শুরু করে। গত দুই বছর ধরে দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সামান্য কিছু কাজ করে রহস্যজনক কারণে হাত গুটিয়ে বসে থাকে। এ কারণেই কাজটি আর শেষ না হওয়ায় গতকাল সোমবার বিকেলে বাঙ্গালী নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধের বালুয়া পয়েন্টে ভেঙ্গে প্রবল বেগে পানি ঢুকতে শুরু করে। একই ভাবে আগের দিন একই বাঁধের দুই কিলোমিটার ভাটির বোচাদহ এলাকায় ভেঙ্গে যায়। এর ফলে মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের পুনতাইড়, বালুয়া, শিংজানী, আমবাড়ী, বোচাদহ, ছয়ঘরিয়া, শ্রীপতিপুর, রাখালবুরুজ ইউনিয়নের হরিনাথপুর, বিশপুকুর, কাজীপাড়া, শিবপুর ইউনিয়নের শিবপুর, কোচাশহর ইউনিয়নের শাহপুর, কানাইপাড়া, বুড়াবুড়ি, শালমারা ইউনিয়নের উলিপুর, দামগাছা, শাখাহাতি বালুয়া, শালমারা, কলাকাটা, বাইগুনি সহ বেশ কটি গ্রামের অধিকাংশ এলাকা পানির নিচে তলিয়ে যেতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। এর ফলে এসব গ্রামের বিস্তীর্ণ আখ ও উঠতি পাটক্ষেত ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে পাহারা দিয়েও বাঁধের ভাঙ্গন ঠেকাতে না পেরে এলাকায় এক প্রকার শোকের আবহ ছড়িয়ে পড়েছে।
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুলঅ লতিফ প্রধান বাঁধ ভাঙ্গনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, সময় মত সংস্কার কাজ শেষ না করায় এই ক্ষতির জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

এই সংবাদটি 1,231 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •