বাণিজ্যের কাছে সবাই জিম্মি হয়ে গেছেন: আবুল হায়াত

প্রকাশিত: ১:৪০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯

বাণিজ্যের কাছে সবাই জিম্মি হয়ে গেছেন: আবুল হায়াত

গতকাল শনিবার ছিল অভিনেতা আবুল হায়াতের ৭৫তম জন্মদিন। অসুস্থ স্ত্রীকে নিয়ে তিনি অবস্থান করছিলেন ব্যাংককে। সেখান থেকে মুঠোফোনে কথা হয় এই অভিনেতার সঙ্গে।

 

শুভ জন্মদিন হায়াত ভাই।

ধন্যবাদ। এবার তো অন্য রকম জন্মদিন কাটছে। স্ত্রী হাসপাতালে, আমি তাঁর সঙ্গে।

 

তিনি কেমন আছেন?

এখন সুস্থ, এটাই সবচেয়ে বড় আনন্দ।

 

‘জীবনের সেই সময়টা যদি ফিরে পেতাম’, কখনো এমন মনে হয়?

প্রতিটা সময়ই মানুষকে আকর্ষণ করে, আন্দোলিত করে। তবে হঠাৎ মনে হয়, ছোটবেলাটা যদি ফিরে পেতাম। পরক্ষণেই মনে হয়, এখনই তো ভালো আছি। কারণ, ম্যাচিউরিটি অর্জন করেছি। ছোটবেলার আনন্দ ছিল না বুঝে, না জেনে। কত দিন বাঁচব জানি না, তারপরও মনে হয় ম্যাচিউরিটি নিয়ে বাঁচব। শোবিজের অনেক তরুণ-তরুণীর সঙ্গে অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করতে পারব।

 

অভিনয়ের মানুষ হিসেবে জানতে চাইব, এখনকার নাটকগুলোর গভীরতা কোথায় হারাল?

নাটক জীবনের গভীরে প্রবেশ করায়। জীবনের প্রতিচ্ছবি নাটক। আমরা মঞ্চ, টেলিভিশন, বেতারে নাটক করতাম। প্রতিটা নাটকে আমাদের জীবনের প্রতিচ্ছবি দেখতাম। মানুষ কিন্তু নাটকের একটি চরিত্রের সঙ্গে নিজেকে আইডেনটিফাই করত। এখন তো হালকা আনন্দ উপভোগ করার জন্য নাটক তৈরি হয়। গভীরে প্রবেশের চেষ্টা কেউ করে না, মানুষকে জোর করে হাসানোর চেষ্টা করে। জীবন ও দর্শন নিয়ে কেউ ভাবছে না। লেখক কিংবা নাট্যকার নাটকের গল্প লিখছেন না, যার যে চরিত্রে অভিনয় করা প্রয়োজন, সেই চরিত্রে সে অভিনয় করছে না। যাঁরা ভালো নাটক বানান, তাঁরা বঞ্চিত হচ্ছেন। তবে কিছু নাটক ভালো হয়। অনেক ভালো ভালো পরিচালকও আছেন আমাদের। ভালো অভিনয়শিল্পীও আছেন। তবে বাণিজ্যের কাছে সবাই জিম্মি হয়ে গেছেন। নাটক-বাণিজ্য যাঁরা করছেন, ভালো নাটক নিয়ে তাঁরা ভাবেন না।

 

জিম্মি কাদের কাছে?

নাটক ব্যবসায়ীরা। আগেই বলে নিই, এই নায়ক আর ওই নায়িকাকে নিলে নাটক প্রচার হবে, গল্পটল্প লাগবে না। ঈদের সময় ৩০০ থেকে ৫০০ নাটক প্রচার হয়। দর্শক কতগুলো নাটক দেখেন? টেলিভিশনে নাটক তো দেখেই না। ইউটিউবে নাটক খোঁজে সবাই।

 

আপনার অভিনয়জীবনে সবচেয়ে বড় অর্জন কী?

মানুষের ভালোবাসা। গোটা দেশের মানুষ আমাকে চেনে, জানে, ভালোবাসে—এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছু নেই। নাটক করতে গিয়ে বড় লেখকদের জীবন-দর্শন সম্পর্কে জেনেছি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশতে শিখেছি।

 

কোন চরিত্রে অভিনয়ের ইচ্ছে এখনো পূর্ণ হয়নি?

কিং লেয়ার। এ জন্মদিনে একজন পরিচালক কথা দিয়েছেন, আমাকে দিয়ে কিং লেয়ারের চরিত্রে অভিনয় করাবেন। দেখি কবে সেই স্বপ্ন পূরণ হয়।

 

শেষ তিন প্রশ্ন

আপনার প্রিয় তিন লেখকের নাম?

শওকত আলী, সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়, মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

প্রিয় তিন পরিচালক?

ঋত্বিক কুমার ঘটক, সৈয়দ হাসান ইমাম ও অনিমেষ আইচ।

 

প্রিয় অভিনয়শিল্পী?

হুমায়ুন ফরীদি, ছবি বিশ্বাস ও সোফিয়া লরেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •