Wed. Jan 22nd, 2020

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

বান্দরবানেই ‘দার্জিলিং’

1 min read

সাঙ্গু নদীর দু’দিকে পাহাড়ের সারি। বর্ষায় পাহাড় বেয়ে নামে ছোট বড় অসংখ্য ছড়া। ছল ছল শব্দে ছড়ার চঞ্চল জল এসে মেশে নদীতে। পাহাড়ের ওপরে ভেসে বেড়ায় মেঘ। মনে হয়, ওই চূড়ায় উঠলেই বুঝি ছোঁয়া যাবে, ধরা যাবে, মেঘের মাঝে ভেসে বেড়ানো যাবে। বান্দরবানে এই মনে হওয়াটা মোটেও বেশি নয়। সাঙ্গুর তীরবর্তী পাহাড়ের চূড়ায় সত্যিই জমে থাকে মেঘ। গাছের ফাঁকে আটকে যায়। সেখানেই ঝরে যায় বৃষ্টি হয়ে।

 

বান্দরবান শহর থেকে কেওক্রাডং পাহাড়ের চূড়ায় পৌঁছানো অবধি এই নদীটির সঙ্গে দেখা হয়েছে বহুবার। প্রতিবারই দেখতে পেলাম নদীর বুকে সাঁইসাঁই করে ছুটছে অসংখ্য মাছ ধরার ইঞ্জিন নৌকা। নদীর ধারে নৃগোষ্ঠীদের চলাচলও চোখে পড়ার মতো। এসব দেখে মুগ্ধ না হয়ে উপায় নেই! আমাদের গাইড তাওহিদ থেকে জানলাম এই নদীকে ঘিরে বেঁচে থাকা অনেক জীবনের গল্প।

 

বান্দরবান থেকে কেওক্রাডংয় যাত্রায় আপনি চাইলে সাঙ্গু নদী, চিংড়ি ঝরনাসহ আরো কিছু প্রাকৃতিক মুগ্ধতার সঙ্গে যোগ করতে পারবেন দারুণ একটি গ্রামের সৌন্দর্যও। গ্রামটির নাম দার্জিলিং পাড়া। এই গ্রামটি অনেকের কাছে বাংলাদেশের দার্জিলিং। অনেকেই শুনে থাকবেন এই গ্রামের নামটি, সঙ্গে এর মন ভোলানো সৌন্দর্যের কথাও। কেওক্রাডং পাহাড়ে যাওয়ার পথে রয়েছে এই গ্রামটি। পাহাড়ের চূড়ার অনেকটা কাছাকাছি পৌঁছালেই দেখা মিলবে ছোট্ট এই গ্রামের। পুরো পথের তুলনায় জায়গাটি ব্যতিক্রম। দূর থেকেই দৃষ্টি কাড়ে এখানকার রঙিন বাড়িগুলো। তাছাড়া এখানে দেখা পাবেন জানা, অজানা অনেক রঙিন ফুলের।

 

 

দার্জিলিং পাড়া

 

 

 

বাসর ঘরেই স্বামী দেখলেন স্ত্রী আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা

বাসর ঘরেই স্বামী দেখলেন স্ত্রী আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা

 

যৌনপল্লীতে প্রভা-মৌটুসী!

যৌনপল্লীতে প্রভা-মৌটুসী!

 

আফগান সীমান্তে চার পাকিস্তানি সেনা নিহত

আফগান সীমান্তে চার পাকিস্তানি সেনা নিহত

 

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের উপকারিতা

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের উপকারিতা

 

সারাদেশে কমেছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী

সারাদেশে কমেছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী

 

নেইমারের বাইসাইকেল গোলে পিএসজির জয় (ভিডিও)

নেইমারের বাইসাইকেল গোলে পিএসজির জয় (ভিডিও)

 

 

পাহাড়ের মাঝখানে অবস্থিত ছোট্ট গ্রামটি যেন প্রাকতিক সৌন্দর্যে আঁধার। সবুজের সমারোহে সাজানো চারপাশ। কিছুটা দূর থেকে দেখলে মনে হয় যেন হাত বাড়ালেই মেঘ ছোঁয়া যাবে। তবে মেঘেরা এখানে বাড়িগুলোর চেয়েও অনেকটা নিচে থাকে। ভোরে পাহাড়ের মাঝখানে ঝুলে থাকা মেঘের দৃশ্য দেখতে বেশ লাগবে। এছাড়া দূর পাহাড়ের কোলঘেঁষে সূর্যটা যখন আলো ফেলে এই গ্রামে সেই দৃশ্যটিও আপনাকে মুগ্ধতায় ঘিরে ফেলবে। আমরা যখন পাহাড়ের বুকে বেশ পথ হেঁটে এই গ্রামে পৌঁছেছিলাম তখন দুপুর হয়ে গিয়েছিল। মাথার উপর ঝলমলে রোদে এই গ্রামটি তখন শান্তির উৎস হয়ে উঠেছিলো আমাদের কাছে।

 

সবচেয়ে ভালো লাগার বিষয়, এটি বেশ পরিচ্ছন্ন ও গোছানো একটি গ্রাম। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি আরো বেশি মুগ্ধ হতে হয় এখানকার মানুষের ব্যবহার ও আচরণে। গ্রামটিতে বাস করা মানুষের সংখ্যা বেশ কম। ৩০টির মতো পরিবার বসবাস করে এখানে। এদের অধিকাংশই বম জাতি। আমাদের চেয়ে তাদের জীবনযাপন যেমন ভিন্ন, তেমনি ভিন্নতা ও বৈচিত্র্য ভাষার বেলাতেও।

 

 

দার্জিলিং পাড়া থেকে ফেরার পথে আবারো চোখে পড়লো সাঙ্গু বা শঙ্খ নদী। অপরূপ এই নদীর জলে আপনি স্বল্প খরচে দারুণ নৌকা ভ্রমণের অভিজ্ঞতা পেতে পারেন। এই নদীর উদার সৌন্দর্য যেমন আপনাকে মুগ্ধ করবে তেমনি মনে এনে দেবে অনাবিল প্রশান্তি। অপূর্ব জলের বুকে ভেসে বেড়াতে বেড়াতে আপনি হারিয়ে যাবেন সৌন্দর্যের জগতে। নদীর দুপাশের পাহাড়ি সৌন্দর্য আপনাকে মন্ত্রমুগ্ধ করবেই। সাঙ্গু নদীতে নৌকা ভ্রমণের পাশাপাশি নদীর আশেপাশে পিকনিকের সুব্যবস্থা আছে। তাই চাইলে সদলবলে পিকনিকের আনন্দেও মেতে উঠতে পারবেন।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.