বিভ্রান্ত না হয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে হবে : মেনন

বিএনপি নেতাদের কথায় বিভ্রান্ত না হয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

 

তিনি বলেন, নির্বাচনে খালেদা জিয়াই বিএনপির একমাত্র ভরসা। তাই তাদের আবদার নির্বাচনের আগেই তাকে (খালেদা) মুক্ত করে দিতে হবে। অন্যথায় দেশে নির্বাচন হবে না এবং তারা নির্বাচন করতে দেবে না। কিন্তু এটা স্পষ্ট করে বলা প্রয়োজন যে দেশে যথাসময়ে নির্বাচন হবে এবং এটাও প্রতিদিন স্পষ্ট হচ্ছে বিএনপিও নির্বাচন করবে। সুতরাং তাদের কথায় বিভ্রান্ত না হয়ে দল ও জোটকে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে হবে।

 

শনিবার তোপখানা রোডস্থ স্বাধীনতা হলে পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাচন সম্পর্কিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

 

 

 

মেনন আরও বলেন, এ নির্বাচন দেশের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ। এ নির্বাচনে সিদ্ধান্ত হবে দেশ গত দশ বছরের অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক উন্নয়নের ধারায় সামনে এগুবে, নাকি অতীতের বিএনপি-জামায়াত ও পূর্ববর্তী সামরিক শাসনামলের হত্যা-ষড়যন্ত্র-অভ্যুত্থান-লুটপাট ও দুর্নীতির ধারাতে ফিরবে।

 

তিনি আশা প্রকাশ করেন যে- অতীতের মতো জনগণ এবারও সঠিক সিদ্ধান্ত নেবেন।

 

কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদের জেলাসমূহ প্রেরিত প্রার্থী তালিকা ও কেন্দ্রীয় কমিটির পার্লামেন্টারি বিভাগ কর্তৃক বাছাইকৃত তালিকা পর্যালোচনা করা হয় এবং চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে ‘নির্বাচনী বোর্ড’ গঠন করা হয়।

 

পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা আগামী নির্র্বাচনে পার্টির প্রস্তুতির কথা তুলে ধরেন এবং আশা করেন পার্টির সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা এ ক্ষেত্রে যথাযোগ্য ভূমিকা পালন করবেন।

 

সভায় পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক, অধ্যাপক সুশান্ত দাস, ইকবাল কবির জাহিদ, নুর আহমদ বকুল, হাজেরা সুলতানা ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড নজরুল ইসলাম হাক্কানী, নজরুল হকজ নীলু, রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল, অ্যাডভোকেট শেখ হাফিজুর রহমান, হবিবুর রহমান, অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, রবিন সরেন, সালেহা সুলতানা, আমিরুল হক আমিন, বজলুর রহমান মাস্টার, সিকান্দর আলী, জাকির হোসেন রাজু, অ্যাড. ফিরোজ আলম, মিজানুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.