বিশ্বকাপ ভেন্যু : রোস্তভ এরেনা

রাশিয়ার রাজধানী মস্কো থেকে প্রায় ১ হাজার কিলোমিটার দূরে রোস্তভ-অন-ডন। এ শহরেই তৈরি হয়েছে বিশ্বকাপ ফুটবলের অন্যতম ভেন্যু রোস্তভ এরেনা। ২০১৪ সালে এ স্টেডিয়াম নির্মাণ কাজের ভিত্তি তৈরি করা হয়। কাজ শেষ হয়েছে বিশ্বকাপের বছরেই।

 

৪৫ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন এ স্টেডিয়ামে হবে বিশ্বকাপের ৫টি ম্যাচ। এর মধ্যে চারটি গ্রুপ পর্বের এবং একটি দ্বিতীয় পর্বের। আর শুরুটাই হবে নেইমারদের ম্যাচ দিয়ে। ১৭ জুন ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ডের ম্যাচটি হবে এ স্টেডিয়ামের বিশ্বকাপের প্রথম। ঘরোয়া ফুটবলে স্থানীয় ক্লাব রোস্তভের হোম ভেন্যু এই স্টেডিয়াম। ক্লাবটি রাশিয়ান প্রিমিয়ার লিগের দল।

 

স্টেডিয়ামের বিশেষ একটি দিক হলো এটা তৈরি সমুদ্রের তরঙ্গ ও নদী প্রবাহের আদলে। বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়া নিশ্চিতের পর ২০১২ সালের ডিসেম্বরে শুরু হয় প্রাথমিকভাবে এ স্টেডিয়াম নির্মাণ কাজ।

 

রোস্তভ অঞ্চলের ডন নদীর কোল ঘেঁষেই তৈরি এ স্টেডিয়ামটি। ২০১৩ সালে পুরোদমে স্টেডিয়াম নির্মাণ কাজ শুরুর কথা থাকলেও ব্যাত্যয় ঘটে আর্থিক নানা কারণে। পরে স্টেডিয়ামের মূল কাজ শুরু হয় ২০১৫ সালে। প্রায় সাড়ে ৩০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে এ স্টেডিয়ামটি।

 

এপ্রিলের ১৫ তারিখ এ স্টেডিয়াম উদ্বোধন হয় স্থানীয় ক্লা রোস্তভ ও এসকে খাভারস্কের মধ্যকার একটি ম্যাচ দিয়ে। স্টেডিয়ামের মাঠ ঘাসের। এখানে হবে দ্বিতীয় পর্বের একটিসহ বিশ্বকাপের ৫টি ম্যাচ। আগেই উল্লেখ করা হয়েছে এখানে ব্রাজিলের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বিশ্বকাপ।

 

১৭ জুন ব্রাজিল ও সুইজারল্যান্ডের ম্যাচের পর আছে সাবেক চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে ও সৌদি আরবের খেলা। দক্ষিণ কোরিয়া ও মেক্সিকোর ম্যাচ ২৩ জুন। আইসল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচ ২৬ জুন। দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচ আছে একটি। ২ জুলাই হবে এ স্টেডিয়ামের শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *