বিশ্বের উষ্ণতম বছর হতে যাচ্ছে ২০১৬

২০১৬ সাল ইতিহাসের উষ্ণতম বছর হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। এ বছরের প্রথম ৯ মাসের তথ্য বিশ্লেষণ করে বিজ্ঞানীরা বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন। এর আগে ২০১৫ সালকেই উষ্ণতম বছর বলে ধারণা করা হতো।

 

মরক্কোতে অনুষ্ঠিত জলবায়ু সম্মেলন উপলক্ষে সোমবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে সংস্থাটি এ হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

 

জাতিসংঘের আবহাওয়াবিষয়ক সংস্থা (ডব্লিউএমও) বলছে, প্রাক-শিল্প সময়ের তুলনায় ২০১৬ সালের তাপমাত্রা ১ দশমিক ২ সেলসিয়াস বেশি ছিল। বছরের বাকি সময়টাতেও উষ্ণতা এরকমই থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই উষ্ণতার পেছনে এল নিনোর কিছুটা প্রভাব থাকলেও বিশ্বব্যাপী কার্বন গ্যাসের নিঃসরণকেই বড় কারণ হিসেবে দেখছেন বিজ্ঞানীরা।

 

বৈশ্বিক কার্বন প্রকল্পবিষয়ক সংস্থার (জিসিপি) গ্লোবাল কার্বন বাজেট প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালে জীবাশ্ম জ্বালানি এবং শিল্প খাতে দাহ্য পদার্থ থেকে কার্বন ডাই-অক্সাইড নিঃসরণের হার সামান্য বেড়েছে। ২০১৫ সাল এবং তার আগের বছর ৩ হাজার ৬৩০ কোটি টন কার্বন ডাই-অক্সাইড নিঃসরণ হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এ বছর আগের দুই বছরের চেয়ে শূন্য দশমিক ২ শতাংশ বেশি অর্থাৎ ৩ হাজার ৬৪০ কোটি টন কার্বন ডাই-অক্সাইড নিঃসরণ হবে।

 

পরপর দুই বছর তাপমাত্রা বৃদ্ধির হার এই ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, জলবায়ু পরিবর্তনের সূচকগুলোও সম্ভবত আগের সব রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যাবে। বিবিসি জানিয়েছে বিশ্বব্যাপী গ্রিনহাউস গ্যাসের নিঃসরণও বেড়েই চলেছে। আর্কটিক সাগরের বরফ বড় মাত্রায় গলতে শুরু করেছে এবং গ্রিনল্যান্ডের বরফ সময়ের আগেই গলতে দেখা গেছে।

 

যুক্তরাজ্য আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা ড. পিটার স্কট বলছেন, এক মাত্রা সেলসিয়াস শুনতে হয়তো কম মনে হয়। কিন্তু এর মানে গত হাজার বছর ধরে যে স্থিতিশীল জলবায়ু আমরা পেয়েছি, তার বড় ধরণের পরিবর্তন ঘটছে, সেটাই প্রমাণ হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.