বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত করা হয়েছে। বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচন ও তাবলীগ জামাতের দু’পক্ষের দ্বন্দ্বের কারণে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গতকাল দুপুরে সচিবালয়ের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাবলীগ জামাতের দুই পক্ষকে নিয়ে বসা বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ধর্মসচিব মো. আনিছুর রহমান ও শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব মাওলানা ফরীদ উদ্‌দীন মাসউদ। দুই পক্ষের বিদ্যমান দ্বন্দ্ব নিরসনে একটি প্রতিনিধিদলের ভারত যাওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও কবে যাচ্ছে সেই তারিখ এখনো নিশ্চিত হয়নি।

এ ব্যাপারে ধর্মসচিব মো. আনিসুর রহমান বলেন, চলতি বছরের বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে দুই গ্রুপের দ্বন্দ্ব নিরসন ও নির্বাচনী বছর হওয়ায় ইজতেমা নিয়ে করণীয় ঠিক করাই ছিল বৈঠকের উদ্দেশ্য। বৈঠকে দ্বন্দ্ব নিরসনে সরকার ও দুই গ্রুপের সমন্বয়ে একটি কমিটি করা হয়েছে। যারা অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ভারতে যাবে। মাওলানা ফরীদ উদ্‌?দীন মাসঊদ মানবজমিনকে বলেন, আশা করি বিদ্যমান দ্বন্দ্ব নিরসন হবে।

সরকারও এ বিষয়ে আন্তরিক। তিনি জানান, দুই পক্ষের সম্মতিতে ইজতেমা স্থগিত হয়েছে। তবে জানুয়ারি শেষের দিকে একটি তারিখে ইজতেমা হবে বলে আশা করেন তিনি।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, দু’পক্ষই নিজেদের পক্ষে বক্তব্য রাখে। একপক্ষ জানায়, মাওলানা সাদ ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন। অন্যপক্ষের দাবি, মাওলানা সাদ ভুল স্বীকার করেননি। এ কারণে বিষয়টি পরিষ্কার হতে একটি প্রতিনিধি দল ভারতে যাবেন। ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দলে রয়েছেন মাওলানা ফরীদ উদ্‌?দীন মাসঊদ, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, তাবলীগের আহলে শূরা সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, মাওলানা মুহাম্মদ যোবায়ের, ধর্মসচিব মো. আনিছুর রহমান ও আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক শেখ আবদুল্লাহ।