ভারত এক পা অগ্রসর হলে আমরা দুই পা আগাবো: ইমরান

দুর্নীতিমুক্ত, মানবিক দেশ গড়ার ঘোষণা দিলেন পাকিস্তানের হবু প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা না হলেও, বুধবারের নির্বাচনে জয়ের দাবি করেছেন তিনি। জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে কথা বলেছেন সরকারপ্রধান হিসেবে নিজের পরিকল্পনা নিয়ে। জানিয়েছেন, করের টাকা নষ্ট করে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে থাকবেন না তিনি।

 

ইমরান খান বলেন,যদি ভারত সরকার আমাদের সাথে সম্পর্কের উন্নয়ন চায় তাহলে আমরা তাদের সাথে আছি। যদি তারা এক পা অগ্রসর হয় তাহলে আমরা দুপা অগ্রসর হবো। কিন্তু তাদের এক পা এগিয়ে আসতে হবে। ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন ও দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠা একমাত্র উপায় সংলাপ।

 

তিনি বলেন, আমি রাজনীতি এসেছিলাম কারণ জিন্নাহ যে পাকিস্তানের স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই পাকিস্তান চেয়েছি। এবং আল্লাহ আমাকে একটা সুযোগ দিয়েছেন আমার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার।

 

সাবেক এই ক্রিকেটার বলেন, এই নির্বাচন একটি ঐতিহাসিক নির্বাচন। আমি বেলুস্তিনের জনগণকে ধন্যবাদ জানাই যারা সন্ত্রাসী হামলার পরও ভোট দিয়েছেন। সন্ত্রাসী হামলার পরও নির্বাচন সার্থকভাবে সমাপ্ত হওয়ায় আমরা পাকিস্তানের গণতন্ত্রের শক্তিশালী হওয়া প্রত্যক্ষ করেছি।

 

আমরা একটা উদাহরণ তৈরি করতে চাই। কিভাবে জবাবদিহিতা করতে হয়। আমি শপথ করছি, আমার সরকার কোন রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় জড়াবে না। আমার সকল নীতি হবে দুর্বলতা কাটিয়ে দেশকে শক্তিশালী অবস্থানে নিয়ে যাওয়া।

 

পিটিআই প্রধান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি হবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আর গভর্নর বাড়ি হবে পর্যটন স্থান।

 

তিনি চীণের সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন হবে বলে জানান, আমরা প্রতিবেশি দেশের সাথে আমাদের সম্পর্কের উন্নয়ন চাই। চীন থেকে দারিদ্র বিমোচনের উপায়টা শিখতে চাই।

 

আফগানিস্তানের সাথে সম্পর্ক নিয়ে ইমরান বলেন, আমরা আমাদের প্রতিবেশি দেশের সাথে শান্তিপূর্ণ সম্পর্ক চাই।

 

আমেরিকার সাথে সম্পর্ক নিয়ে পিটিআই প্রধান বলেন, আমরা আমেরিকার সাথে সমঝোতামূলক সহযোগিতাপূর্ন সম্পর্ক চাই।

 

তবে তিনি ভারতের সংবাদ মাধ্যেমের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, তারা এমনভাবে আমার নির্বাচনের সংবাদ প্রকাশ করেছেন। যেনো আমি বলিউডের কোন ভিলেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.