মহানগরীর বেকার সমস্যা নিরসনে র্গামেন্টস কারখানা স্থাপন করা হবে`

‘মহানগরীর বেকার সমস্যা নিরসনে আগামি পাঁচ বছরে একশটি গার্মেন্টস কারখানা স্থাপন করা হবে। টেলারিং এ- ড্রেস মেকিং ট্রেডে প্রশিক্ষণ গ্রহণকারী দক্ষতা অর্জনকারীদের এ সমস্ত গার্মেন্টস কারখানায় কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।’ গতকাল বৃহস্পতিবার ইউসেপ বাংলাদেশ রাজশাহী রিজিয়ন চাইল্ড এ- ওমেন রাইটস এ্যাডভোকেসি (সিডাব্লিউআরএ) আয়োজনে নগর ভবন সরিৎ দত্ত গুপ্ত নগর সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
তিনি বলেন, ‘সমাজের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের এগিয়ে নিতে ইউসেপ বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। প্রশিক্ষিত নারী পুরুষ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। ইউসেপ রাজশাহীতে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদ গড়ে তুলছে।’
ইউসেপ বাংলাদেশের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘শুধু সরকারী চাকুরীর জন্য সময় নষ্ট না করে সন্তানদের কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে অভিভাবকদের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটাতে হবে। মাদকের গ্রাস থেকে রক্ষা করতে যুবসমাজকে কর্মে সম্পৃক্ত করতে হবে।’
সভায় সম্মানিত বিশেষ অতিথি ছিলেন রাসিক’র প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-৩ ও ১নং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর তাহেরা খাতুন মিলি, এফডব্লিউসিএর পরিচালক ওয়াহিদা খানম, ওয়েবের সভাপতি আঞ্জুমান আরা পারভীন।
স্বাগত বক্তব্য দেন ইউসেপ বাংলাদেশ রাজশাহীর ডিপিও ড. ফেরদৌষ আরা পারভীন। সভায় রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলরবৃন্দ ও ইউসেপের ডেপুটি প্রোগ্রাম কর্মকর্তা জব প্লেসমেন্ট প্রবীর কুমার পাল, হেড অব টেকনিক্যাল স্কুল শেখ রওশন আমিন, এ্যাসিটেন্ট প্রোগ্রাম কর্মকর্তা মো. শাহজাহান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।