মার্কিন কংগ্রেসে প্রথম মুসলিম নারী

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে প্রথম মুসলিম নারী হিসেবে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন রাশিদা তালিব। ৪২ বছর বয়সী রাশিদা ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত। ডেমোক্রেট দল থেকে মনোনয়নপ্রাপ্ত রাশিদা মিশিগান রাজ্যের সাবেক আইনপ্রণেতা। মিশিগান আইনসভাতেও তিনি ছিলেন প্রথম নির্বাচিত মুসলিম নারী।

 

ফিলিস্তিনি অভিবাসী পরিবারের মেয়ে হিসেবে তার পরিবারে রাশিদাই প্রথম সন্তান, যিনি হাইস্কুল ডিপ্লোমা অর্জন শেষে কলেজ ডিগ্রি ও ল’ডিগ্রি অর্জন করেন। মিশিগান আইনসভায় তিনি সর্বোচ্চ ছয় বছর দায়িত্ব পালন করেছেন।

 

রাজ্যের ১৩ জেলার প্রতিনিধি হওয়ার দৌড়ে আছেন রাশিদা। ওই আসনে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টি কিংবা তৃতীয় কোনো দলের প্রার্থী না থাকায় নির্বাচনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন রশিদা। নির্বাচিত হলে আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে দুই বছরের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

 

এক টুইট বার্তায় রাশিদা বলেছেন, ‘আমি কিছু বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। কংগ্রেসে আপনাদের স্বার্থরক্ষায় লড়ার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।’

 

রাজ্যের ওই আসনটিতে ১৯৬৫ সাল থেকে কংগ্রেসে প্রতিনিধিত্ব করছিলেন জন কনয়ার্স জুনিয়র। তবে গত বছর যৌন কেলেঙ্কারিতে অবসরে যান তিনি। ডেমোক্র্যাট দলের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ প্রাইমারি ৩৩.৬ ভাগ সমর্থন পেয়েছেন রাশিদা তালিব।

 

কংগ্রেস নির্বাচনে আরও কয়েকজন মুসলিম নারী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে ওইসব এলাকায় এখনো প্রাইমারি অনুষ্ঠিত হয়নি। তাদের মধ্যে রয়েছেন- মিনেসোটা স্টেট রিপ্রেজেনটেটিভ ইলহান ওমর, আরিজোনা থেকে সিনেটে লড়ছেন ডিড্রা আবুদ এবং ম্যাসাচুসেটসের তাহিরা আমাতুল-ওয়াদুদ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.