Sun. Sep 15th, 2019

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সংবাদ বর্জনের ঘোষণা লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের

সভায় সাংবাদিকদের সঙ্গে অশোভন আচরণের অভিযোগ তুলে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সংবাদ বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব।

 

শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভায় ওই ঘটনা ঘটার পর ক্লাবের জরুরি এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয় বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

 

এতে আরও বলা হয়, তবে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে তার অনুষ্ঠানের বক্তব্য এবং অন্যান্য সংবাদের বেলায় এই সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য হবে না।

 

শনিবার লন্ডনে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের এক সভায় ছিলেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।

 

অভিযোগ উঠেছে, আমন্ত্রণপত্র দেওয়ার পর প্রায় আটজন সাংবাদিকের আমন্ত্রণপত্র বাতিল করা হয়।

 

এছাড়া প্রেস ক্লাবের সাবেক দুই সভাপতি জনমতের প্রধান সম্পাদক ও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি সৈয়দ নাহাস পাশা এবং জনমতের সম্পাদক নবাব উদ্দিন আমন্ত্রণপত্র নিয়ে অনুষ্ঠানে গেলেও তাদের ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

 

সভার আয়োজকদের এই ‘চরম অসৌজন্যমূলক আচরণের’ পর জরুরি সভায় বসে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব।

 

ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মুহাম্মদ জুবায়েরের পরিচালনায় এই প্রতিবাদ সভায় ঘটনার বর্ণনা দেন সৈয়দ নাহাস পাশা, নবাব উদ্দিন ও আ স ম মাসুম।

 

উপস্থিত ছিলেন প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাপ্তাহিক পত্রিকার প্রধান সম্পাদক মোহাম্মদ বেলাল আহমদ, প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারি নজরুল ইসলাম বাসন, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির প্রতিনিধি হাসান হাফিজ, দর্পন সম্পাদক রহমত আলী, এটিএন বাংলার সিনিয়র রিপোর্টার ও বেতার বাংলার পরিচালক মোস্তাক বাবুল, বাংলাদেশ প্রতিদিনের ডেপুটি ব্যুরো চিফ আফজাল হোসেন, চ্যানেল এস’র সিনিয়র রিপোর্টার ইব্রাহীম খলিল, ওয়ানবাংলা সম্পাদক ও টিভি ওয়ানের সিনিয়র রিপোর্টার জাকির হোসেন কয়েস, এনটিভির চিফ রিপোর্টার আকরাম হোসেইন, প্রবাস বাংলার সম্পাদক মাহবুব আহমদ, বাংলা ভিশনের প্রতিনিধি আব্দুল হান্নান, এসএ টিভির বিশেষ প্রতিনিধি হেফাজুল করিম রাকিব, জনমতের কমিউনিটি এডিটর ইমরান আহমদ, ৫২ বাংলা টিভি র সম্পাদক  আনোয়ারুল ইসলাম অভি ও রিপোর্টার সামসুর রহমান, এলবি টিভির সিনিয়র রিপোর্টার আলাউর খান প্রমুখ ।

 

সভায় সিদ্ধান্ত জানিয়ে প্রেস ক্লাবের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “আওয়ামী লীগ এবং এর সব অঙ্গসংগঠনের কার্যক্রম ও তৎপরতার সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। তবে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে তার শনিবারের অনুষ্ঠানের বক্তব্য এবং অন্যান্য সংবাদের বেলায় তা প্রযোজ্য হবে না।”

 

অনুষ্ঠানের আয়োজক হিসেবে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান শরীফ এবং সেক্রেটারি সৈয়দ ফারুকের কাছে ঘটনার ব্যাখ্যা দাবি ও ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব।

 

ওই ঘটনা নিয়ে যুক্তরাজ্য থেকে প্রকাশিত বাংলা সংবাদপত্রগুলো এক সপ্তাহ তাদের প্রথম পাতায় প্রতীকী প্রতিবাদ প্রকাশ করবে বলে জানানো হয়েছে।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Developed By by Positive it USA.

Developed By Positive itUSA