যুক্তরাজ্য পৌঁছালেন আমিরাতে ক্ষমা পাওয়া ব্রিটিশ শিক্ষাবিদ

সংযুক্ত আরব আমিরাতে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে যাবজ্জীবন সাজা পাওয়ার পর ক্ষমা পাওয়া ব্রিটিশ শিক্ষাবিদ ম্যাথিউ হেজ যুক্তরাজ্যে পৌঁছেছেন। সোমবার তাকে আমিরাতি প্রেসিডেন্ট ক্ষমা ঘোষণা করেন। মঙ্গলবার সকালে তিনি যুক্তরাজ্য পৌঁছান। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এখবর জানিয়েছে।

হেজের পরিবারের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার সকালে লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দরে তার পৌঁছার কথা নিশ্চিত করা হয়েছে। বিমানবন্দরে এ সময় তার স্ত্রী ড্যানিয়েলা তেজাদা ও পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

দীর্ঘ সাত মাস নিঃসঙ্গ কারাবাস ভোগ করা এই ব্রিটিশ নাগরিক বলেন, আমার মুক্তির জন্য যারা কাজ করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানানো কোথা থেকে শুরু করবো তা জানি না। যা লেখা হয়েছে সেগুলো সম্পর্কে আমি বিশেষ কিছুই জানি না। ডানি (স্ত্রী) আমাকে জানিয়েছে আমার সমর্থনে লেখাগুলো ছিল অসাধারণ। ব্রিটিশ দূতাবাসসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

সোমবার দেশটির জাতীয় দিবস উপলক্ষে সাত শতাধিক মানুষকে ক্ষমা করেছেন আমিরাতের প্রেসিডেন্ট খালিজা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান। ক্ষমা পাওয়াদের মধ্যে রয়েছেন এই ব্রিটিশ শিক্ষাবিদ।

২০১৮ সালের ৫ মে উত্তর ইংল্যান্ডের ডারহাম ইউনিভার্সিটির পিএইচডি শিক্ষার্থী ম্যাথিউ হেজকে গ্রেফতার করে আমিরাতি কর্তৃপক্ষ। গবেষণা কাজে দুই দিনের সফরে আসার সময় দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গত সপ্তাহে তাকে গোয়েন্দাবৃত্তির অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এই ঘটনায় আন্তর্জাতিক ও ব্রিটিশ নিন্দার মুখে পড়ে আমিরাত।

শুক্রবার আমিরাতি কর্তৃপক্ষ ইঙ্গিত দেয়, তারা বিষয়টি সমাধানের জন্য কাজ করছে। সোমবার কর্মকর্তারা জানান, হেজকে গ্রেফতার করা হয়েছে অকাট্য প্রমাণের ভিত্তিতে। একটি ভিডিও ফুটেজে হেজ নিজেকে ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা এমআই-৬ এর ক্যাপ্টেন বলে দাবি করতে দেখা গেছে।