রাউজানে মাছে ও গাছে এক দৃষ্টিনন্দন সা¤্রাজ্য

প্রকাশিত:রবিবার, ২১ জুন ২০২০ ০৯:০৬

 

রাউজান, (চট্টগ্রাম) :
রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলর আজাদ হোসেন মৎস চাষ আর পুকুর পাড় জুড়ে বাহারী ফলজ বাগান যেন এক প্রকৃতির মুক্ত বিহঙ্গ। মিষ্টি মধুর শীতল হাওয়া আর নানা পাখিদের কলকাকলিতে মুখরিত হয়ে উঠে কাউন্সিলরের বাগান বাড়ির চারপাশ। এমন এক সুবাসিত প্রাচ্যের দৃষ্টিনন্দন প্রজেক্ট গড়ে উঠেছে রাউজান পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের সাবলঙ্গা ও দলিলাবাদ এলাকায়। প্রকৃতির সংমিশ্রনে বেড়ে উঠা কাউন্সিলর আজাদ হোসনের স্বপ্ন ছিল ফলজ বাগান, শাকসবজীর চাষাবাদ ও মৎস্য খামার গড়ে তোলার। তাঁর সেই স্বপ্ন গুলো বাস্তবায়নে গত ১০ বছর ধরে প্রায় ২০ একর জায়গার উপর পরিকল্পিত বাবে গড়ে তুলেন বাগান ও মৎস্য চাষের উপযোগী পুকুর। সরজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায়, আজাদ হোসনের বিশাল এলাকা জুড়ে গড়ে তুলা মনোমুগ্ধকর সেই প্রজেক্ট রয়েছে একটি বাগান বাড়ি। বাড়ীর চারপাশে রয়েছে প্রকৃতিক এক সুন্দর পরিবেশ। বাড়ীর উত্তর দক্ষিণ অংশে রয়েছে প্রায় ১২ একর জাগায় উপর ৫টি মৎস্য চাষের পুকুর। আর পুকুর পাড়ের বিশাল অংশে রোপন করা হয়েছে আম, জাম, কাঠাঁল, লেবু, কমলা, দারুচিনি, তেজপাতা, পেঁপেঁ, পেয়ারাসহ বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ গাছ। পাশাপাশি রয়েছে নানা রকম দেশিয় শাকসবজি। তিনি শুরুতে সখের আশায় শুরু করলেও এখন তিনি বানিজ্যিক বাবে চাষাবাদ করে যাচ্ছেন। এবিষয়ে কাউন্সিলর আজাদ হোসেন বলেন, পুকুর গুলোতে রয়েছে নানা জাতের দেশিয় মাছ, এছাড়া নতুন করে দুটি পুকুরে ছাড়া হয়েছে হালদা নদীর পোনা। তিনি আশা প্রকাশ করছেন এবার এই বর্ষা সময়ে প্রায় কয়েকটন শাক-সবজি বিক্রি করবেন।

এই সংবাদটি 1,228 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •