রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ কিনে নেয়নি : মার্সেলো

বিশ্বকাপের আর মাত্র ছয়দিন বাকি কিন্তু এখনো নেইমারের ভবিষ্যৎ নিয়ে সরগরম ফুটবল পাড়া। সম্প্রতি ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছেন ব্রাজিল জাতীয় দলে। ফিরেই ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে চোখ ধাঁধানো এক গোলও করছেন তিনি। জাতীয় দলে নেইমারের সতীর্থ মার্সেলো মনে করেন নেইমারের জন্য রিয়াল মাদ্রিদের দরজা সবসময়েই খোলা। অন্যদিকে মার্সেলোর ক্লাব সতীর্থ রোনালদো ইঙ্গিত দিয়েছেন বিশ্বকাপের পরেই ক্লাব ছাড়বেন তিনি। রোনালদো-নেইমার প্রসঙ্গে বেশ জটিল অবস্থার মধ্যে পড়েছেন মার্সেলো।

 

ক্লাব পর্যায়ে মার্সেলোর সঙ্গে বেশ ভালো সখ্যতা রয়েছে রোনালদোর। কিন্তু ক্লাব যখন কাউকে কিনতে চাইবে তখন রোনালদো বাঁধা দিতে পারেন না বলেও জানান মার্সেলো। ‘রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ কিনে নেয়নি। সে এখানে আছে এর মানে এই না যে নেইমারকে কেনা যাবে না। আমরা সবাই চাই রোনালদো এখানে থেকে যাক কিন্তু নেইমারের জন্য রিয়ালের দরজা সবসময়েই খোলা। আমার মনে হয় সেরা খেলোয়াড়দের রিয়ালেই খেলা উচিৎ এবং আমি বিগত দুই-তিন বছর যাবত বলে আসছি, নেইমার একদিন রিয়ালেই আসবে।’

 

 

 

নেইমার রিয়াল আসুক বা না আসুক সেটা ভবিষ্যতেই ভালো জানা যাবে। রোনালদো-নেইমার কাণ্ডের মত আরো এক দ্বন্দ্বে পড়েছেন মার্সেলো। ক্লাব সতীর্থ রামোস সম্প্রতি মার্সেলোর জাতীয় দলের সতীর্থ ফিরমিনোকে কটূক্তি করেন। ফিরমিনোও কম যান না। রামোসকে ‘নির্বোধ’ বলেন তিনি।

 

এই বিষয়ে মার্সেলোর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি রামোসকে ১২ বছর ধরে চিনি। টানা তিন বছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতছি দেখে মানুষের বিতৃষ্ণা চলে এসেছে। রামোসকে নিয়ে কথা বলছে কারণ গোলরক্ষকের সঙ্গে তার সংঘর্ষ। আমি ফিরমিনোর ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে পারবো না কিন্তু পেশাদার ফুটবলে আপনাকে সবসময়েই সম্মান করতে হবে, হোক সে প্রতিপক্ষ কিংবা সতীর্থ।’

 

ফিফা ব্যালন ডি’অরের পুরস্কারে শীর্ষ তিনে থাকলেও এখনো এই পুরস্কারটি জেতা হয়নি নেইমারের। মার্সেলো আশা প্রকাশ করেছেন একদিন রোনালদোর মত সেও ফিফা ব্যালন ডি’অর জিতবে। ‘আমার কাছে নিঃসন্দেহে রোনালদো বর্তমান সময়ের সেরা ফুটবলার এবং নেইমারেরও অসাধারণ ক্যারিয়ার পড়ে আছে সামনে। একসময় সেও রোনালদো মতো সবকিছু অর্জন করতে পারবে।’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.