Fri. Feb 21st, 2020

BANGLANEWSUS.COM

-ONLINE PORTAL

লক্ষ্মীপুরে ফুলকপির বাম্পার ফলন, দাম ভালো পাওয়ায় খুশি কৃষক

1 min read

 

তাবারক হোসেন আজাদ,লক্ষ্মীপুর :
লক্ষ্মীপুরে চলতি মৌসুমে ফুলকপির ভালো ফলন হয়েছে। অল্প খরচে লাভ বেশী হওয়ায় ফুলকপি চাষ করে হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে । খরচের তুলনায় লাভ বেশি হওয়ায় দিন দিন এ অঞ্চলে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ফুলকপি চাষ। অনূকুল আবহাওয়া, সময়মত বীজ বপন ও সুষম সার ব্যবহারের এবার কফির ফলনও হয়েছে ভাল। এতে লাভের মুখ দেখছেন চাষীরা। এলাকার উৎপাদিত কপি চাহিদা মিটিয়ে সরবরাহ হচ্ছে দেশের বিভিন্ন জেলায়। এঅঞ্চলের চাষীরা তাদের উৎপাদিত কপি এখন বাজারজাত করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। বাজার দরও পাচ্ছেন ভাল। এতে হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, চলতি মৌসুমে নানা প্রতিকূল আবহাওয়ার মাঝেও লক্ষ্মীপুরে ৩ হাজার ৬৪০ হেক্টর জমিতে রকমারি শীতকালিন সবজির আবাদ করা হয়। এর মধ্যে ১৩৭ হেক্টর জমিতে আবাদ করা হয়েছে ফুলকপি। অনুকুল আবহাওয়া, সময়মত বীজ বোপন ও সুষম সারের ব্যবহারের ফলে এবার লক্ষ্মীপুরে ফুলকপির বাম্পার ফলন হয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষি বিভাগ।

সদর উপজেলার চরমনসা গ্রামের কৃষক নজির মিয়া, কামরুল মাঝি, শহিদ হোসেনসহ কয়েকজন কৃষক জানালেন, শীতকালিন সবজি ফুলকপি আবাদ করে ভালো লাভ হওয়ায় এখানকার কৃষকরা ফুলকপিসহ শীতকালিন সবজি চাষে ক্রমেই আগ্রহী হয়ে উঠছেন। তবে এবছর নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের মাঝেও ফুলকপির আবাদ ভালো হয়েছে। আর বাজার দর ভালো থাকায় লাভও হয়েছে বেশি। একটি ফুলকপি উৎপাদন করতে তাদের গড় খরচ হয় ৯ থেকে ১০টাকা। বাজারে চাহিদা ভালো থাকায় উৎপাদিত ফুলকপি মানভেদে বিক্রী করে কৃষকরা পাচ্ছেন ৪০ থেকে ৪৫ টাকা।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর লক্ষ্মীপুরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ বেলাল হোসেন খান জানান, শীতকালিন সবজি ফুলকপি আবাদ করে লাভবান হওয়ায় এঅঞ্চলের কৃষকদের ফুলকপি চাষে দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে। বিষমুক্ত ফুলকপি আবাদে কৃষকদের মাঠ পর্যায়ে কৃষি বিভাগ সহায়তা প্রদান করছে বলে জানান তিনি।

এদিকে সবজি চাষে প্রশিক্ষণ ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দিলে এ অঞ্চলে সবজি চাষে কৃষকদের আগ্রহ আরো বাড়াবে বলে মনে করেন এখানকার কৃষক।

Copyright © Banglanewsus.com All rights reserved. | Newsphere by AF themes.