লন্ডনে পিপিই সংকট

প্রকাশিত: ৬:০৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৯, ২০২০

লন্ডনে পিপিই সংকট

পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) সংকট থাকায় লন্ডনের একটি হাসপাতালে নার্সদের বর্জ্য ফেলার পলিথিন পরিয়ে করোনায় আক্রান্তদের সেবা করতে বাধ্য করা হচ্ছে। তারা জানান, পিপিই সংকট থাকায় এবং কোনো উপায় না পেয়ে হাসপাতালের বর্জ্য ফেলার ব্যাগ পরতে বাধ্য হচ্ছেন।

গত কয়েক সপ্তাহ আগে হ্যারো শহরের নর্থউইক পার্ক হাসপাতালের তিন নার্স তাদের যথাযথ মাস্ক, গাউন ও গ্লোবস পেতে হাসপাতালের বর্জ্য ফেলার ব্যাগ দিয়ে বানানো পিপিই পরা ছবি শেয়ার করেন।

 

ডেইলি টেলিগ্রাফের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যের সংবাদ মাধ্যম মেট্রো ইউকে জানায়, পিপিই সংকট থাকায় পলিথিন পরে করোনা আক্রান্তদের সেবা করার কারণে ওই তিন নার্সের করোনা টেস্ট পজেটিভ এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুমূর্ষু রোগীদের জন্য বরাদ্দ করা সিট পূর্ণ হওয়ায় হাসপাতালটিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।ওই হাসপাতালটিতে একটি ওয়ার্ডে ডিউটি করা অর্ধেকের বেশি স্টাফের করোনা ধরা পড়েছে।

ওই নার্সরা একটি প্রকাশনীকে জানায়, মার্চে তারা বিনলাইনার ব্যবহার করার কারণে আতঙ্কে ছিলেন।তারা বলেছেন, পিপিই সংকট থাকার কারণে অন্য কোনো পছন্দ না থাকায় এগুলো পরতে হয়েছে।

একজন নার্স জানিয়েছিলেন, রোগীদের থেকে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরে তারা সহকর্মীদের চিকিৎসা করেছিলেন।

তিনি বলেছেন, হাপানি ও ডায়াবেটিসে আক্রান্ত থাকায় অনেক কম বয়সী মানুষ ভ্যান্টিলেশনে রয়েছেন।তাদের কাশ থামছে না। তাদের শুধু কাশি, কাশি আর কাশি। আমরা তাদের সাহায্য করি।তাদের শ্বাস প্রশ্বাসে সহায়তা ছাড়া আমরা কিছুই করতে পারি না। তাদের শরীর অনেক সময় ছেড়ে দেয় এবং তারা মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে। আমরা তাদের বাঁচাতে পারি না।শেষ বিদায়ের সময় তাদের নিকটাত্মীয়দের প্রবেশে আমরা অনুমতি দিতে পারি না।

তিনি যোগ করেন, নার্সরা সবসময় মুখে সাহসী হাসি রাখেন। তবে তারা ভেতর অনেক আতঙ্কগ্রস্থ থাকে।পরিবারের মধ্যে ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার ভয়ে অনেকে তাদের পরিবার সঙ্গে দেখা করছেন না।

স্বাস্থ সচিব ম্যাট হ্যানককের দেয়া তথ্যানুযায়ী, করেনাভাইারাসের কারণে ৫ দশমিক ৭ শতাংশ হাসপাতালের চিকিৎসক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।তবে রয়েল কলেজ অফ ফিজিশিয়ানদের (আরসিপি) দ্বারা পরিচালিত সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে এই সংখ্যাটি আরও কাছাকাছি হতে পারে।

রয়েল কলেজ অফ নার্সিংয়ের প্রধান নির্বাহী ও জেনারেল সেক্রেটারি ডেম ডোনা কিন্নায়ার বলেছেন, মহামারীটির সন্মুখভাগে কাজ করা নার্সরা এখনও পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) শেয়ার করে পরতে বাধ্য হচ্ছে।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •