শচীন দেব বর্মণের বাড়ির মূল অবয়ব ফিরিয়ে আনতে সংস্কার চলছে: অক্টোবরে জন্মবার্ষিকী

ইয়াসমীন রীমা,২২ আগস্ট,কুমিল্লা

উপমহাদেশের অন্যতম সংগীত গুরু সুরসম্রাট শচীন দেব বর্মনের (এসডি বর্মন) কুমিল্লা বাড়িতে মূল অবয়বে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে মুল বভনের সংস্কার কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে এর সীমানা প্রাচীরের নির্মাণ কাজসহ বাড়িটির সংস্কার কাজের প্রায় ৭০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। চলতি বছরের অক্টোবরে শচীন দেবের জন্মবার্ষিকীর আগেই এর কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসন। তবে বাড়িটির চার পাশের পরিবেশ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে সচেতন মহলে। এর প্রবেশ পথের ডান পাসে রয়েছে একটি সরকারি হাস-মুরগীর খামার। যার ফলে বিনষ্ট হচ্ছে নান্দনিকতার। এটি অন্যস্থানে সরিয়ে নিতে স্থানীয়সহ সুশীল সমাজ দাবী জানিয়েছেন।
জানা যায়, ১৯২৫ সালে কিংবদন্তী শিল্পী শচীন-কর্তা ভারতে চলে যান। এরপর থেকে কুমিল্লা মাহানগরীর উত্তর চর্থা (নবাবাবাড়ি) এলাকায় এ বাড়িটি অযতেœ আর অবহেলায় পড়ে থাকে। খসে খসে পড়ে বাড়িটির মুল ভবনের ইট-সুরকী। দীর্ঘ ৯০ বছর পর বাড়িটি নজরে আসে সংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের। উদ্যোগ নেয়া হয় এই গুণী শিল্পীর স্মৃতিচিহ্ন রক্ষার। অবশেষে শচীন দেবের বাড়িটি সংস্কারের জন্য ১১০ কোটি ১০ লাখ ৪৮ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় সরকার। যা দিয়ে ৭৩ শতক জায়গার উপর অবস্থিত বাড়িটির সংস্কার ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন করার কথা রয়েছে।
গতবছর ২৫ মে বঙ্গবন্ধু কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাড়িটির সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। তবে প্রকল্পের কাজ ২০১৫-১৬ অর্থবছরের মধ্যে সম্পন্ন করার কথা রয়েছে। এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন।
কুমিল্লার সংস্কৃতিক ও নাট্য কর্মী শাহজাহান চৌধুরী বলেন, কিংবদন্তী এসডি বর্মনের বাড়িটি সরকার সোয়াশ’ কোটি টাকা খরচ করে নান্দনিক কাজে সংস্কার করছে। তবে এর প্রবেশ পথে হাস-মুরগীর খামারটির কারণে বাড়িটির সৌন্দয্য বিনষ্ট হচ্ছে। এটি অন্যত্রে সরিয়ে নিলে বাড়িটির নান্দনিকতা আরো বৃদ্ধি পাবে। দর্শনার্থীরাও আরো আকৃষ্ট হবে।
প্রতœতত্ত্ব বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী মো. জাকির হোসেন জানান, আমরা দ্রুততম সময়ের মধ্যে বাড়িটির সংস্কার কাজ সম্পন্ন করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করছি। আশা করছি নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করতে পারবো।
কুমিল্লা জেলা প্রশাসক হাসানুজ্জামান কলে¬াল বলেন, উপমহাদেশের বিখ্যাত সংগীত শিল্পী সচীন দেব বর্মণ এ বাড়িতে দীর্ঘ সময় কেটেছে। জেলার সংস্কৃতিকে সর্বত্রে ছড়িয়ে দিতে অবহেলিত এ বাড়িটি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। নান্দনিক কাজে খচিত বাড়িটি সুরক্ষার জন্য সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে সংস্কার কাজ সম্পন্নের মাধ্যমে এর মূল অবয়বে ফিরিয়ে আনতে প্রতœতত্ত্ব বিভাগের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে দ্রুত কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। চলতি বছরের অক্টোবর মাসে বরেণ্য শিল্পী সচীন দেবের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বাড়িটিতে বড় ধরণের অনুষ্ঠান আয়োজনের কথা রয়েছে। এর আগেই সংস্কার ও নান্দনিকতার কাজ সম্পন্ন করা হবে।
হাসানুজ্জামান কল্লোল আরো জানান, নান্দনিক কাজে খচিত শচীন দেব বর্মণের বাড়ির প্রবেশ পথে সরকারি হাস-মুরগীর খামারটি সৌন্দর্য্য বিনষ্ট করছে। এটি অন্যত্র সরিয়ে নিতে ইতোমধ্যে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি চালাচালি চলছে। খামারের জায়গায় সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সে তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.