শরণখোলায় ১০ টাকা কেজির চাল জব্দ

প্রকাশিত: ১২:২৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৪, ২০২০

শরণখোলায় ১০ টাকা কেজির চাল জব্দ

 

শরণখোলা (বাগেরহাট)
শরণখোলায় দুঃস্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ১০ টাকা কেজি দরে ফেয়ারপ্রাইজ ডিলারের মাধ্যমে বিতরনের ১৮ বস্তা চাল পাচারের সময় জব্দ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। শুক্রবার রাত ৯টায় তাফালবাড়ি বাজারের ব্যক্তিগত একটি গোডাউন থেকে ওই চাল জব্দ করেন তিনি। এসময় রফিকুল ইসলাম লিটন (৩৫) নামের ওই গোডাউন মালিককে আটক করা হয়। এ ঘটনায় শরণখোলা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ডিলার তারিকুল ইসলাম তারেক পালাতক রয়েছেন। তারেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান পারভেজের ছোট ভাই এবং সাউথখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোজাম্মেল হোসেনের ভাইর ছেলে।
ইউএনও সরদার মোস্তফা শহিন জানান, উপজেলার সাউথখালী ইউনয়নের ফেরার প্রাইজ ডিলার তারিকুল ইসলাম তারেক ১০টাকা কেজি দরে দুঃস্তদের মাঝে বিতরনের ওই চাল বিক্রী না করে পাচারের জন্য অন্যত্র সরিয়ে রাখছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ খবর পেয়ে রাত ৯টায় অভিযান চালান তিনি। অভিযানে চাল রায়েন্দা গ্রামের আঃ মজিদ মুন্সির পুত্র রফিকুল ইসলামের ব্যাক্তিগত গোডাউন থেকে খাদ্য অধিদপ্তরের ১৮ বস্তা চাল জব্দ করেন। ওই চাল ফেয়ারপ্রাইজ ডিলার তারিকুল ইসলাম তারেকের বলে রফিকুল স্বীকার করেন। এব্যাপারে ওই ডিলারের লাইসেন্স বাতিলসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান।
শরণখোলা থানার অফিসার ইন চার্জ এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, এ ব্যাপারে খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ডিলার তারিকুল ইসলাম তারেকসহ আটক রফিকুল ইসলামের নামে মামলা দায়ের করেছেন।
উপজেলা খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, ডিলার তারেক ৩ শতাধিক সুবিধাভোগীর জন্য মার্চ মাসের বিতরনের ১১ মেট্রিকটন চাল উত্তোলন করেন। তবে ওই মাসের বিতরনের মাষ্টাররোল তিনি এখন পর্যন্ত জমা দেননি।
এ ব্যাপারে ডিলার তারিকুল ইসলাম তারেক জানান, জব্দকৃত চাল তার নয়। উত্তোলনকৃত সব চাল বিক্রীর মাষ্টাররোল তার কাছে রয়েছে।
এদিকে, উপজেরার চারটি ইউনিয়নের ২০ জন ডিলার মার্চ মাসের বরাদ্দ ২৫০ মেট্রিকটন চাল উত্তোলন করলেও সব বিক্রী না করে নিজেরাই মাষ্টাররোলে স্বাক্ষর করে চাল আত্মসাৎ করার অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগীরা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •