শ্রীলঙ্কার পুনর্জন্ম ঘটিয়েছেন হাথুরু!

জিম্বাবুয়ে এবং শ্রীলঙ্কা- গত দু’বছর এই দু’দলের পারফরম্যান্সের তুলনা করলে কাউকেই এগিয়ে রাখা সম্ভব নয়। তলানীতে যাচ্ছে দু’দলই। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট তো হারিয়ে যাওয়ার একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে শ্রীলঙ্কাও ধীরে ধীরে নামছে তলানীতে। মাহেলা জয়াবর্ধনে আর কুমারা সাঙ্গাকারার বিদায়ের পর শ্রীলঙ্কা যেন ‘চুপসে যাওয়া বেলুন’। ঘুরে দাঁড়ানোর মন্ত্র এই দলটিকে কেউ ফুঁকে দিতে পারছে না।

 

যে কারণে, জিম্বাবুয়ের মত দল এসে শ্রীলঙ্কাকে তাদেরই মাটিতে ওয়ানডে সিরিজে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে যেতে পারে। বাংলাদেশ সিরিজ হারিয়ে আসতে না পারলেও টাইগারদের বিপক্ষে তারা জিততেও পারেনি। ভারত তাদের মাটিতে গিয়ে জিতে এসেছে ৫-০ ব্যবধানে। আরব আমিরাতের মাটিতে পাকিস্তান জিতেছে ৫-০ ব্যবধানে। ভারতের মাটিতে গিয়ে একটি ম্যাচ জিতলেও সিরিজ হেরেছে ২-১ ব্যবধানে।

 

টেস্ট ক্রিকেটে ওয়ানডের মত এতটা খারাপ হয়নি সত্য। কারণ, রঙ্গনা হেরাথের মত অভিজ্ঞ এক স্পিনার রয়েছে দলটিতে। যে কারণে, নিজেদের মাটিতে অস্ট্রেলিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিল অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের দল। তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে ৩-০ ব্যবধানে হেরে এসেছে। নিজেদের মাটিতে বাংলাদেশের সঙ্গে ১-১ ড্র করতে হয়েছে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে কোনমতে জিততে পেরেছে ঘরের মাটিতে। এরপর ভারত তাদের মাটিতে গিয়ে জিতে এসেছে ৩-০ ব্যবধানে। আরব আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতেছে ২-০ ব্যবধানে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.