সংকটে সিলেটে আটকা পড়েছেন আবুধাবি প্রবাসীরা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার, ১৩ আগ ২০২০ ০৪:০৮

সংকটে সিলেটে আটকা পড়েছেন আবুধাবি প্রবাসীরা

কারো ভিসার মেয়াদ চলে গেছে, আবার কারো মেয়াদ আছে আর সামান্য ক’দিন। কিন্তু ফিরে যেতে পারছেন না কর্মস্থল সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে। ফিরে যাওয়ার টিকেট না পেয়ে গত দু’দিন ধরে তারা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলান্সের সিলেট অফিসের সামনে বিক্ষোভ করছেন। চলতি আগস্ট মাস পর্যন্ত আবুধাবিগামী বিমানের সবকটি ফ্লাইটের সিট বুকিং হয়ে যাওয়ায় তাদেরকে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে বিমান কর্মকর্তাদের। এমতাবস্থায় সিলেটে আটকাপড়া প্রায় চার হাজার আবুদাবি প্রবাসীকে ঘিরে ধরেছে অন্ধকার। প্রবাসে ফিরে যাওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে শঙ্কা।

করোনা পরিস্থিতিতে ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সিলেট বিভাগের কয়েক হাজার দুবাই ও আবুধাবি প্রবাসী আটকা পড়েন। গত ৪ জুলাই থেকে ফ্লাইট চালু হলে দুবাই ও আবুধাবি প্রবাসীরা সেদেশের সরকারের অনুমতি (এপ্রোভাল) সাপেক্ষে ফিরে যাওয়া শুরু করেন। বর্তমানে বাংলাদেশ বিমান সপ্তাহে দুবাইয়ে ৫টি ও আবুধাবিতে ২টি ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে। গত মঙ্গলবার থেকে আবুধাবি প্রবাসীদের ফিরে যেতে ‘এপ্রোভাল’ লাগবে না- এমনটা ঘোষণার পর প্রবাসীরা ফিরে যেতে বিমান অফিসে হুমড়ি খেয়ে পড়েন। গতকাল বুধবার ও আগের দিন মঙ্গলবার টিকেটের জন্য কয়েক হাজার প্রবাসী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সিলেট অফিসে যান। কিন্তু ইতোমধ্যে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত বিমানের সকল ফ্লাইটের টিকেট বুকিং হয়ে যাওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা যাত্রীদের কাছে অসহায়ত্ব প্রকাশ করেন। এই অবস্থায় গতকাল সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সহস্রাধিক আবুধাবি প্রবাসীরা বিমান অফিসের সামনে আম্বরখানা-বিমানবন্দর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে। ঘন্টাখানেক পরে পুলিশ এসে তাদেরকে শান্ত করে সড়ক দিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

মৌলভীবাজারের রাজনগর থেকে আসা আবুধাবি প্রবাসী রায়হান আহমদ জানান, চলতি মাসের মধ্যে তিনি আবুধাবি ফিরে যেতে না পারলে ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু কোনভাবেই বিমানের টিকেট ‘ম্যানেজ’ করতে পারছেন না। কবে টিকেট মিলবে তার জবাবও দিতে পারছেন না বিমান অফিসের লোকজন। এই অবস্থায় আবুধাবিতে ফিরে যাওয়া নিয়ে শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন রায়হান।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের সিলেট জেলা ব্যবস্থাপক শাহনেওয়াজ মজুমদার বলেন, ‘সপ্তাহে দুবাইয়ে ৫টি ও আবুধাবিতে বিমানের ২টি ফ্লাইট যাচ্ছে। দুবাই ফ্লাইটের টিকেটের কোন সমস্যা নেই। কিন্তু আবুধাবিতে ফ্লাইট কম হওয়ায় ৩০ আগস্ট পর্যন্ত সকল টিকেট বিক্রি হয়ে গেছে। এছাড়া গত মঙ্গলবার থেকে ‘এপ্রোভাল’ সিস্টেম তুলে দেওয়ায় আটকা পড়া সকল যাত্রী একসাথে যেতে চাইছেন। তাই সংকট আরো বেড়েছে।’

শাহনেওয়াজ আরও জানান, ‘বুধবার প্রায় দেড় হাজার যাত্রী এসেছিলেন টিকেটের জন্য। টিকেট না পেয়ে তারা বিমান অফিসের বাইরে বিক্ষোভ করেছেন। টিটেক সংকটের কারণ তাদেরকে বুঝিয়ে বলা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় কাগজ রাখা হয়েছে। সিট খালি হলেই ক্রমান্বয়ে তাদেরকে সুযোগ দেয়া হবে।’

এই সংবাদটি 1,233 বার পড়া হয়েছে

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •